নিউজ ডেস্ক: ভোলার চরফ্যাশনে আবাসিক হোটেলে আটকে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে চরফ্যাশন থানা পুলিশ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চরফ্যাশন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনির হোসেন।

সোমবার (৫ অক্টোবর) বিকেলে ধর্ষিতা নিজে বাদী হয়ে ধর্ষণের এই অভিযোগ দায়ের করেন। আসামিরা হলেন সোহাগ (২৫), পারভেজ ও মোতালেব। এ ঘটনায় প্রধান আসামি সোহাগসহ পুলিশ তিনজনকে হোটেল থেকে আটক করা হয়।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ৩ অক্টোবর ভুক্তভোগী গৃহবধূর সাথে পূর্বপরিচয়ের সূত্র ধরে সোহাগ বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ফুসলিয়ে হোটেলে নিয়ে আটকে রেখে ধর্ষণ করে। এসময় সোহাগের অপর দুই সহযোগী পারভেজ ও মোতালেব সহায়তা করেন। সে এই ঘটনা কাউকে না জানানোর জন্য হুমকি দেয়। তবে গৃহবধূ কৌশলে হোটেল থেকে পালিয়ে থানার গিয়ে অভিযোগ করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে চরফ্যাশন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনির হোসেন বলেন, গৃহবধূর সঙ্গে মোবাইলে সোহাগের প্রেমের সম্পর্ক হয়। পরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে হোটেলে নিয়ে আসার পরে এই ঘটনা ঘটে। পরে ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ থানায় অভিযোগ দিলে সোহাগসহ তার অপর দুই সহায়তাকারীকে আটক করা হয়েছে।