নিজস্ব প্রতিবেদক: বড়াইগ্রামে রবিউল ইসলাম (৩৮) নামে এক ব্যক্তিকে বেদম প্রহার করে গুরুতরভাবে আহত করেছে প্রতিপক্ষ। আহত ব্যক্তি উপজেলার চামটা থান্দারপাড়া গ্রামের মৃত ময়েজ উদ্দিনের পুত্র। প্রধান অভিযুক্ত বুলবুল আহম্মেদ বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন, আমার লোকজন কিছু উত্তম মাধ্যম দিয়েছে।

মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) উপজেলার জোনাইল ইউনিয়নের চামটা থান্দার পাড়া গ্রামে থান্দার ও সরকার পরিবারের এ ঘটনা ঘটে। আহত রবিউল ইসলামকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে বড়াইগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে। এঘটনায় আহতের ভাই রফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ করেছেন। আহত রবিউলের ভাতিজা পলাশ থান্দার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সকালে রবিউল ইসলাম জোনাইল বাজারে যাওয়ার সময় চামটা লবো সদ্দার মোড়ে পৌছলে পিছন দিক থেকে ধাওয়া দেয় একই গ্রামের আলিমদ্দিনের ছেলে বুলবুল সরকার (৩২), জিয়ারুল সরকার (৩৫), দোলন সরকার (২৮), জিল্লুর হোসেন (৪২) মৃত জারমানের পুত্র তজির, ইন্তার ছেলে সাইফুল ইসলাম (২২), ছবির উদ্দিনে পুত্র নাজিম হোসেন (৪২) প্রমুখ।

এসময় ভয়ে রবিউল ইসলাম ওই এলাকার মৃত রজব আলীর পুত্র তোজামের ঘরে আশ্রয় নেয়। বুলবুলসহ হামলাকারীরা তোজামের ঘরের লোহার দরজা ভেঙ্গে এলোপাতারি মারপিট করে তাকে। পরে স্থানীয়রা এসে আহত অবস্থায় রবিউল ইসলামকে উদ্ধার করে স্থানীয় ক্লিনিকে পরে বড়াইগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন যাবত থান্দার পরিবার ও সরকার পরিবারের মধ্যে দ্বন্দ ছিল। ২০১৫ সালে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় বুলবুলের ভাই ভুলন নিহত হন। এছাড়া ২০১৬ সালে জোনাইল বাজারে রবিউলের ভাই প্রভাষক আলতাব হোসেনকে মারপিট করে বুলবুলসহ সরকার পরিবার। এরপরে ৩ বছর এলাকার বাহিরে ছিল রবিউল ইসলামসহ থান্দার পরিবারের সবাই। পরে পুলিশের সহায়তায় বাড়িতে বসবাস তারা। এই ঘটনার সুত্র ধরে দুই পরিবার মধ্যে একাধিক মামলা চলমান রয়েছে।

তোজামের স্ত্রী বিমলা বলেন, আমি বাড়িতে কাজ করতে ছিলাম। হঠাৎ করে রবিউল এসে আমার দরজা বন্ধ করে দেয়। পিছনে পিছনে বুলবুল ও তার দল এসে দরজা ভেঙ্গে বের করে লোহার রড ও লাঠি বাটাম দিয়ে মারপিট করে।

আমার লোকজন কিছু উত্তম মাধ্যম দিয়েছে জানিয়ে বুলবুল আহম্মেদ বলেন, আমি ঘটনার সময় ছিলাম না। আমাদের বিরুদ্বে কোর্টে মামলা দায়ের করেছিল তারা। কোর্টে হাজিরা দিতে যাওয়ার সময় রবিউল ইসলাম গালিগালাজ করেছিল। এরপর যা হবার হয়েছে।