নিউজ ডেস্ক: হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের সাবেক আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফীর মৃত্যু নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে কটূক্তি করায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তার হয়েছেন আহলে সুন্নত ওয়াল জামাতের উপদেষ্টা আলাউদ্দিন জিহাদী।

রোববার (২০ সেপ্টেম্বর) সকালে আইসিটি মামলায় ফতুল্লার মাহমুদপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে ফতুল্লা মডেল থানার পুলিশ। এর আগে রোববার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ মহানগর ওলামা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ও দেওভোগ মাদ্রাসার খতিব মুফতি হারুনুর রশিদ এ মামলা দায়ের করেন।

এদিকে ‘মুফতি আলাউদ্দিন’ নামে আইডিতে প্রবেশ করে দেখা যায়- কটূক্তিকর স্ট্যাটাসটি ডিলেট করে দুঃখ প্রকাশ করে আরেকটি স্ট্যাটাস দেয়া হয়েছে। সেই স্ট্যাটাসে লেখা রয়েছে ‘পূর্বের পোস্টটি অত্র পেজের একজন অ্যাডমিন আমাকে না জানিয়ে দিয়েছিল। এরূপ পোস্ট অবশ্যই অনুচিত ও বেমানান। পোস্টটির জন্য দুঃখ প্রকাশ করছি।’

এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন জানান, কারও মৃত্যু নিয়ে কটূক্তি করা ঠিক নয়। এ বিষয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে। যে আইডি থেকে কটূক্তি করা হয়েছে সেই ‘মুফতি আলাউদ্দিন’ নামে ফেসবুক আইডিটি শনাক্ত করা হয়েছে। ওই আইডির অ্যাডমিন মুফতি আলাউদ্দিন জিহাদী। এ আইডি থেকে কটূক্তিকর স্ট্যাটাস দেয়ার পর অপর আসামিরা তা শেয়ার করেছে।

তিনি আরো জানান, আল্লামা শফীকে নিয়ে ফেসবুকে কটূক্তি করার অপরাধে আলাউদ্দিন জিহাদীর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে। তাকে মাহমুদপুরের তার নিজ বাসা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন চেয়ে তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। আদালত সোমবার রিমান্ড শুনানির দিন ধার্য করে আসামিকে জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দেন।

এদিকে এ ঘটনার প্রতিবাদে নারায়ণগগঞ্জ আলেম ওলামাগণ দুপুরে মানববন্ধন করেছে। সেখানে তারা দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করে বক্তব্য রাখেন। ওই সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন- ওলামা পরিষদের নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সভাপতি মাওলানা ফেরদৌস, মাওলানা জহির, মাওলানা রবিউল্লাহ, নারায়ণগঞ্জ মারকাজ মাওলানা ওমর ফারুক, ইউপি সদস্য জিএম আমিন হোসেন প্রমুখ।