নিউজ ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের নতুন সরকারের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়ন ঘটাতে প্রায় দুই বছর স্থগিত রাখার পর আবারও ইসরাইলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদার করছে তুরস্ক। ইহুদিবাদী দেশটিতে আবারও রাষ্ট্রদূত নিয়োগ দিচ্ছে এরদোগান সরকার। মধ্যপ্রাচ্য পর্যবেক্ষণকারী সংবাদমাধ্যম আল মনিটরের বরাতে ইসরাইলি সংবাদমাধ্যমগুলো এ খবর জানিয়েছে।

এর আগে ২০১৮ সালে গাজা উপত্যকায় ফিলিস্তিনিদের ওপর হত্যাকাণ্ড চালানো এবং জেরুজালেম শহরে মার্কিন দূতাবাস স্থানান্তর করার প্রতিবাদে তুরস্কের রাষ্ট্রদূতকে দেশে ফেরত নেয়া হয়। এরপর এই প্রথম অধিকৃত ভূখণ্ডে নতুন করে রাষ্ট্রদূত নিয়োগ করার উদ্যোগ নিল আঙ্কারা।

ইসরাইলে নিযুক্ত নতুন তুর্কি রাষ্ট্রদূত উফুক উলুতাস জেরুজালেমের হিব্রু বিশ্ববিদ্যালয়ে হিব্রু ও মধ্যপ্রাচ্যের রাজনীতি নিয়ে পড়াশুনা করেছেন। ৪০ বছর বয়সী উফুক ইরান বিষয়ক একজন বিশেষজ্ঞও হলেও তিনি পেশাদার কূটনীতিক নন বলে জানা গেছে। গত সপ্তাহে কয়েকটি সূত্রের বরাত দিয়ে আল-মনিটর জানিয়েছিল যে, উলুতাস কোনো পেশাদার কূটনীতিক নন তবে খুবই মার্জিত, চতুর এবং ফিলিস্তিনপন্থী।

সম্প্রতি আমেরিকার সঙ্গে তুরস্কের সম্পর্কে টানাপড়েন দেখা দিয়েছে। এ পরিস্থিতিতে আমেরিকার সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়ন ঘটাতে আঙ্কারা ইসরাইলে নতুন রাষ্ট্রদূত নিয়োগের পরিকল্পনা নিয়েছে।

টাইমস অব ইসরাইল রোববার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, তুরস্ক রাষ্ট্রদূত নিয়োগ করলেও ইসরাইল তুরস্কে নতুন রাষ্ট্রদূত পাঠাবে কিনা তা পরিষ্কার নয়। এর আগে ২০১৬ সালে ইসরাইলের সঙ্গে তুরস্ক সম্পর্ক স্বাভাবিক করার চুক্তি করলেও দু দেশের সম্পর্ক অনেকটা টালমাটাল অবস্থার মধ্যদিয়ে পার হয়।