নিজস্ব প্রতিবেদক: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, ‘ইসি মুখে যত কথা বলুক না কেন, একটা কথাও বিশ্বাস করবেন না। তাদের মুখে এক কথা, মনের মধ্যে আরেক কথা। তারা জানে, তাদের কোনো নিয়ন্ত্রণ নাই। তাদের কোনো কথা পুলিশ বা প্রশাসন শোনে না’।

শুক্রবার সকালে রাজধানীতে জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘গণতন্ত্র ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় প্রয়োজন লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড এবং নির্বাচন কমিশনের ভূমিকা’ শীর্ষক এক আলোচনাসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

মওদুদ বলেন, ইসি মুখে যত কথাই বলুক না কেন, একটা কথাও বিশ্বাস করবেন না। তাদের মুখে এক কথা, মনের মধ্যে আরেক কথা।

তিনি বলেন, মন্ত্রী ও সরকারদলীয় প্রার্থীরা আচরণবিধি লঙ্ঘন করছে। দেশে কোনো লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নেই। তার সম্ভাবনাও নেই। ইসি সরকারের তল্পিবাহক বলে মন্তব্য করেন তিনি।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে শেষ পরীক্ষা উল্লেখ করে মওদুদ বলেন, এই পরীক্ষায় দেশের মানুষকে ভোটের মাধ্যমে শান্তিপূর্ণভাবে সরকার অপসারণ করতে হবে।

সে জন্য ভোটের অধিকার নিশ্চিত করতে ভোটারদের বোঝাতে হবে, যত অসুবিধা হোক না কেন, যত হুমকি-ধামকি থাকুক না কেন, আপনাদের ভোটকেন্দ্রে যেতে হবে। ভোটের মাধ্যমে এই সরকারের সব অপকর্মের উত্তর দিতে হবে, বলেন তিনি।

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম নেতা মাহমুদুর রহমান মান্না দাবি করেন, দেশে কোনো লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নেই। তার সম্ভাবনাও নেই। ইসি সরকারের তল্পিবাহক বলে মন্তব্য করেন তিনি।

বিএনপির কর্মীদের উদ্দেশে মান্না বলেন, ‘আপনারাও জিয়া, খালেদাকে নিয়ে ছবি বানান, গান বানান। গ্রামে গিয়ে তা প্রচার করেন।’

জামায়াতের ধানের শীষে নির্বাচন করা প্রসঙ্গে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, অতীতের জন্য জামায়াতকে ক্ষমা চাইতে হবে।

জাফরুল্লাহ বলেন, বিএনপিতে এবার অনেক মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে, যা বিএনপির প্রতি মানুষের সমর্থন প্রকাশ করে। অধিক প্রার্থী হওয়ার আগ্রহের এই আস্থাকে মীমাংসা করা না গেলে সমস্যা তৈরি হবে।

আওয়ামী লীগের ২০ শতাংশ নতুন প্রার্থী মনোনয়ন দেওয়াকে ভালো দিক উল্লেখ করে জাফরুল্লাহ বলেন, বিএনপিতে অনেক বেশি পুরোনোদের মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। চূড়ান্ত প্রার্থী করার সময় বিএনপি বিষয়টি নিয়ে ভাববে বলে তাঁর আশা।

আদর্শ নাগরিক আন্দোলন নামের একটি সংগঠনের আয়োজনে এই আলোচনাসভায় আরও উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সভাপতি মুহাম্মদ মাহমুদুল হাসান, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মো. রহমতুল্লাসহ প্রমুখ।