নিউজ ডেস্ক: ঢাকা-৫ আসনে একাদশ সংসদ নির্বাচনে বিএনপির নবী উল্লাহ নবীকে বাদ দিয়ে সাবেক এমপি সালাউদ্দিন আহমেদকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। অন্যদিকে নওগাঁ-৬ আসনে জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য শেখ মো. রেজাউল ইসলাম রেজুকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে।

রোববার (১৩ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সালাউদ্দিন আহমেদ ১৯৯১ সাল থেকে তিন দফায় ধানের শীষের সংসদ সদস্য ছিলেন। তিনি বর্তমানে বিএনপির বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক। অন্যদিকে শেখ মো. রেজাউল ইসলাম নওগাঁ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য। এর আগে আত্রাই থানার সভাপতিও ছিলেন তিনি।

জানা গেছে, জাতীয় সংসদে শূন্য এই চার আসনের উপ নির্বাচনে অংশ নিতে ২৮ মনোনয়নপ্রত্যাশীর সাক্ষাৎকার নিয়েছে বিএনপির পার্লামেন্টারি বোর্ড। গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে শনিবার বিকাল ৫টা থেকে রাত ৮টা ৪০ মিনিট পর্যন্ত ভার্চুয়ালি সাক্ষাৎকার নেওয়া হয়। ঢাকা-৫ আসনে ছয়জন, নওগাঁ-৬ আসনে নয়জন, ঢাকা-১৮ আসনে নয়জন এবং সিরাজগঞ্জ-১ আসনে চারজন প্রার্থীর সাক্ষাৎকার নেওয়া হয়।

এদিকে ঢাকা-১৮ ও সিরাজগঞ্জ-১ আসনে উপ নির্বাচনের তফসিল এখনও ঘোষণা করা হয়নি। মোহাম্মদ নাসিমের মৃত্যুতে সিরাজগঞ্জ-১ এবং সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে ঢাকা-১৮ আসন শূন্য হয়।

ঢাকা-৫ আসনে সালাউদ্দিন আহমেদ ছাড়াও বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন সালাহউদ্দিন আহমেদ, অধ্যক্ষ সেলিম ভুঁইয়া, নবী উল্লাহ নবী, মো. জুম্মন মিয়া, আকবর হোসেন নান্টু ও আনোয়ার হোসেন সর্দার।

অন্যদিকে নওগাঁ-৬ আসনে শেখ মো. রেজাউল ইসলাম ছাড়াও মনোনয়ন সংগ্রহ করেছিলেন আনোয়ার হোসেন, শেখ আব্দুস শুকুর, এস এম আল ফারুক জেমস, মাহমুদুল আরেফিন স্বপন, ইছহাক আলী, আতিকুর রহমান রতন মোল্লা, মো. শফিকুল ইসলাম, আবু জাহিদ মো. রফিকুল আলম রফিক।

প্রসঙ্গত, গত ৬ মে ঢাকা-৫ আসনের সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগ নেতা হাবিবুর রহমান মোল্লার মৃত্যুতে এ নির্বাচনি আসনটি খালি হয়। গত ২৭ জুলাই নওগাঁ-৬ আসনে আওয়ামী লীগ থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য ইসরাফিল আলম করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করায় আসনটি শূন্য হয়েছে। নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী এই দুই উপ নির্বাচনে ভোট হবে ১৭ অক্টোবর।