নিউজ ডেস্ক: দেশে একদিনে (গত ২৪ ঘণ্টায়) সুস্থ হয়েছেন চার হাজার ৯১০ জন করোনা রোগী। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন এক লাখ তিন হাজার ২২৭ জন। সব মিলিয়ে এ পর্যন্ত পাঁচ লাখ নয় লাখ ৬৬ হাজার ৪০০টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

এছাড়া করোনাভাইরাসে দেশে (গত ২৪ ঘণ্টায়) ৩৩ জনের প্রাণহানি হয়েছে।। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল দুই হাজার ৪২৪ জনে। একই সময়ে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন তিন হাজার ১৬৩ জন। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল এক লাখ ৯০ হাজার ৫৭ জন।

মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) দুপুর আড়াইটার দিকে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে অনলাইনে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দৈনন্দিন স্বাস্থ্য বুলেটিনে এ তথ্য জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

তিনি আরো জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩ হাজার ৯৮৮টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৩ হাজার ৪৫৩টি নমুনা পরীক্ষা করে ৩ হাজার ১৬৩জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৯০ হাজার ৫৭ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২৩ দশমিক ৫১ শতাংশ।

ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৩ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ২৩ জন ও নারী ১০ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ২ হাজার ৪২৪ জন। এ পর্যন্ত যারা মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের মধ্যে পুরুষের সংখ্যা এক হাজার ৯১৩ জন আর নারী ৫১১ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৪ হাজার ৯১০ জন এ পর্যন্ত সুস্থ ১ লাখ ৩ হাজার ২২৭ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫৪ দশমিক ৩১ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৮ শতাংশ।

তিনি আরো জানান, বয়স বিভাজনে ৩১-৪০ বছরের মধ্যে ২ জন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৪ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ৬ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ৯ জন, ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ১১ জন এবং ৮১-৯০ বছরের একজন মারা গেছেন।

ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা বিভাগে ১৩ জন, চট্টগ্রামে ৩ জন, রাজশাহীতে ৪ জন, খুলনায় ৫ জন, বরিশালে একজন, রংপুরে ২ জন এবং সিলেটে ৫ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ৪৩ জন এবং বাড়িতে ৪ জন মারা গেছেন।

তিনি আরো জানান, এখন পর্যন্ত ঢাকা বিভাগে এক হাজার ২০৮ জন, চট্টগ্রামে ৬২৬ জন, রাজশাহী ১২৫, খুলনায় ১৩৩ জন, বরিশালে ৮৯ জন, রংপুরে ৭৭, সিলেটে ১১০ এবং ময়মনসিংহে ৫৬ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ২৯ জন এবং বাড়িতে ৪ জন মারা গেছেন।

ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ৮৬১ জন ও আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ৫৭২ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন ৩৮ হাজার ১৩১ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১৭ হাজার ৬৬০ জন।