নিজস্ব প্রতিবেদক: বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক উপমন্ত্রী রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু বলেছেন, ২০০৮ সালে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেয়ার সিদ্ধান্ত বিএনপির জন্য একটি বড় ভুল ছিল। ওই নির্বাচনে এক-এগারোর কুশীলবরা তাদের কৃতকর্মের বৈধতা চেয়েছিলেন বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার কাছে।

সোমবার (১৫ এপ্রিল) রাতে নাটোর শহরের আলাইপুরস্থ দলীয় কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে দেড় ঘণ্টাব্যাপী এ মতবিনিমকালে এসব কথা বলেন জেলা বিএনপির সভাপতি দুলু। প্রায় অর্ধযুগ পর নাটোরের সাংবাদিকদের মুখোমুখি হলেন বিএনপির নাটোর জেলা সভাপতি দুলু।

দুলু আরো বলেন, কিন্তু বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া আপোস করেননি তবুও গণতন্ত্রের স্বার্থে বিএনপি নির্বাচনে অংশ নেয়। অথচ ২০১৪ সালে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ না নেয়া বিএনপির জন্য বড় ভুল ছিলো। নির্বাচনে অংশ নিলে বিএনপির বিজয় সুনিশ্চিত ছিল।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ‘পুরো প্রশাসনিক সেটআপে’ হয়েছে মন্তব্য করে দুলু বলেন, ৩০শে ডিসেম্বরের জাতীয় নির্বাচনে দেশবাসীর নতুন অভিজ্ঞতা হয়েছে। এটাই প্রথম নির্বাচন যার বছরখানেক আগে থেকে কে, কোথায়, কী দায়িত্ব পালন করবেন তা নির্ধারণ করা হয়েছিল।

সাবেক এ উপমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপির কেন্দ্রীয় অনেক নেতা বয়সজনিত কারণে অসুস্থ। তৃণমূলেও অনেক নেতা-কর্মী হামলা-মামলায় জর্জরিত। এ অবস্থায় আগামীতে ঘুরে দাঁড়াতে পুনর্গঠিত হচ্ছে বিএনপি। নেতৃত্বে পরিবর্তন আনা জরুরি।’

দুলু আরো বলেন, দেশে গণতন্ত্র নেই। এখানে সরকারি দলের সমর্থকদের জন্য এক আইন আর বিএনপিসহ বিরোধীদের জন্য অন্য আইন। এমন নজির বিশ্বে নেই।

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি শহিদুল ইসলাম বাচ্চু, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পরাজিত প্রার্থী সাবিনা ইয়াসমিন ছবি, সদর উপজেলা বিএনপির সভাপতি রহিম নেওয়াজ, সাবেক কাউন্সিলর সদরুল ইসলাম ডাম্বেল, ছাত্রনেতা সানোয়ার হোসেন, রাসেল আহম্মেদ প্রমুখ।