ক্রীড়া প্রতিবেদক: চট্টগ্রাম টেস্টের দ্বিতীয় দিনে দুই দলের উইকেট পড়েছে ১৭টি। বাংলাদেশ পেয়েছে ১০টি, হারিয়েছে ৭টি। তবে মজার ব্যাপার হলো এই ১৭ উইকেটের মধ্যে সবগুলো উইকেট শিকার করেছেন স্পিনাররা। আগের দিনে ৮ উইকেটে ৩১৫ রান করা বাংলাদেশ, শুক্রবার আর মাত্র ৯ রান যোগ করতেই অলআউট হয়।

বোলিংয়ে ২৪৬ রান খরচ করে তুলে নেয় ক্যারিবীয়দের ১০ উইকেট। আর এই উইকেট শিকারে অনন্য কীর্তি গড়েছেন নাঈম হাসান। নিজের অভিষেক টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৬১ রানে ৫ উইকেট শিকার করেন নাঈম।

৪৩ রানে ৩ উইকেট নেন সাকিব আল হাসান। আর মাত্র ১ উইকেট শিকার করলে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে টেস্টে ২০০ উইকেট হবে সাকিবের। নাঈম-সাকিবের দুর্দান্ত বোলিংয়ে বাংলাদেশ লিড পায় ৭৮ রানের।

জাতীয় দলের ১ ৭ বছর বয়সী স্পিনার নাঈম হাসান ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টে অভিষেকই গড়লেন বিশ্বরেকর্ড।

শুক্রবার ক্যারিবীয়দের ৫ উইকেট নিয়েছেন নাঈম। রোস্তন চেজকে দিয়ে শুরু। তারপর একে একে শিকার করলেন সুনিল আমব্রিস, দেবেন্দ্র বিশু, ক্রেমার রোচ ও জোমেল ওয়ারিকানের উইকেট। এর মধ্যে দিয়ে সর্বকনিষ্ঠ বোলার হিসেবে অভিষেক টেস্টে ৫ উইকেট নেওয়ার বিশ্বরেকর্ড গড়লেন তিনি। নাঈমের বয়স ১৭ বছর ১১ মাস ২০ দিন।

এর আগের রেকর্ডটি ছিল অস্ট্রেলিয়ান পেসার প্যাট কামিন্সের। ২০১০ সালে জোহানেসবার্গে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে নিজের অভিষেক টেস্টে ৬ উইকেট নিয়েছিলেন কামিন্স। সেসময় তার বয়স ছিল ১৮ বছর ৬ মাস ৯ দিন।