নিজস্ব প্রতিবেদক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নাটোর-১ আসনে বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কামরুন্নাহার শিরিনের মনোনয়ন স্হগিত করে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগে যোগ দেয়া নাটোর বিএনপি জেলা কমিটির বহিস্কৃত সাংগঠনিক সম্পাদক ও গোপালপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র মঞ্জুরুল ইসলাম বিমলকে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী হিসেবে চুড়ান্ত মনোনয়ন দেয়া হয়েছে।

এর আগে গত অনেক নাটকীয়তার পর শুক্রবার (৭ ডিসেম্বর) সকালে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বকুলের হাতে নৌকার চুড়ান্ত মনোনয়নের চিঠি তুলে দেন। এর আগে এই আসনে আওয়ামী লীগ জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বকুলকে প্রথমে মনোনয়ন দেয়। পরে সাবেক সেনা কর্মকর্তা কর্ণেল রমজান আলীকেও আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন দেয়া হয়। এ নিয়ে এলাকায় উভয় পক্ষের সমর্থকদের মাঝে চাপা উত্তেজনা বিরাজ করে। বৃহস্পতিবার প্রার্থীতা নিশ্চত করার দাবিতে নাটোরের বাগাতিপাড়ায় কাফনের কাপড় পড়ে রেলপথ অবরোধ করে বিক্ষোভ করে আওয়ামী লীগ প্রার্থী শহিদুল ইসলাম বকুল সমর্থক নেতাকর্ী।

বিমল ধানের শীষ নিয়ে লড়াই করবেন নৌকার প্রার্থী ও নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বকুলের বিরুদ্ধে।তারা দুজনই এই আসনে নতুন প্রার্থী। তবে বিমলের রয়েছে বেশ কয়েকবার নির্বাচনে জয় লাভের অভিজ্ঞতা। তাছাড়া এলাকায় তাদের দুজনের রয়েছে গ্রহণযোগ্যতা ও ব্যাপক জনপ্রিয়তা। এই আসনে শুধুমাত্র নৌকা আর ধানের শীষের লড়াই নয়, বরং বকুল আর বিমনের ব্যক্তিত্বের লড়াই। তাই বলা যায়, এবার নাটোর-১ আসনে শেয়ানে শেয়ানে লড়াই হবে। ৩০ তারিখে দেখা যাবে কে জয় লাভ করে।