ছবি: প্রতীকী

নিউজ ডেস্ক: গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরো ৩২ জনের প্রাণহানি হয়েছে। এ নিয়ে মোট প্রাণহানি হয়েছে তিন হাজার ৬৫৭ জনের। একই সময়ে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন দুই হাজার ২৪ জন। সব মিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে দুই লাখ ৭৬ হাজার ৫৪৯ জন।

রোববার ( ১৬ আগস্ট) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞতিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞতিতে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ৯ হাজার ৬৩৬টি। আগের নমুনাসহ মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১০ হাজার ১৮টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৩ লাখ ৫১ হাজার ৬৬৬টি।

বিজ্ঞতিতে আরো জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩২ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে পুরুষ ২৫ জন এবং নারী সাতজন। এ পর্যন্ত করোনায় মৃতদের মধ্যে পুরুষ দুই হাজার ৮৯০ জন (৭৯ দশমিক ০৩ শতাংশ) এবং নারী ৭৬৭ জন (২০ দশমিক ৯৭ শতাংশ)। মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে ১৯ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে নয়জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে তিনজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে একজন রয়েছেন।

এতে আরো জানানো হয়, ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৩২ জনের মধ্যে ২৫ জন পুরুষ ও নারী সাত জন। এদের মধ্যে রয়েছেন ঢাকা বিভাগে ১৪ জন, চট্টগ্রাম ও বরিশাল বিভাগে তিনজন করে ছয়জন, রাজশাহী বিভাগে ছয়জন। খুলনা, সিলেট ও রংপুর বিভাগে দু’জন করে ছয়জন। এদের মধ্যে হাসপাতালে মারা গেছেন ৩১ জন, বাড়িতে একজন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৩১৫ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ৫৮ হাজার ৯৫৯ জন।

আরো জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ৫৭৯ জন ও আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ৪৪৯ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন ৬২ হাজার ৭২ জন। আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র নিয়েছেন ৪১ হাজার ৭৩৩ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ২০ হাজার ৩৩৯ জন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার তুলনায় রোগী শনাক্তের হার ২০ দশমিক ২০ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষার তুলনায় রোগী শনাক্তের হার ২০ দশমিক ৪৬ শতাংশ। রোগী শনাক্তের তুলনায় সুস্থতার হার ৫৭ দশমিক ৪৮ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৩২ শতাংশ।