ছবি: প্রতীকী

নিউজ ডেস্ক: করোনায় দেশে ২৪ ঘণ্টায় আরো ৪৭ জনের প্রাণহানি হয়েছে। এ নিয়ে মোট প্রাণহানি সংখ্যা দাঁড়াল ৪ হাজার ১৭৪ জন। এ ছাড়া নতুন করে আরো ২ হাজার ২১১ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত বলে শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলো ৩ লাখ ৬ হাজার ৭৯৪ করোনা রোগী।

শুক্রবার (২৮ আগস্ট) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত করোনাভাইরাস বিষয়ক এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন তিন হাজার ৩৭৮ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ৯৬ হাজার ৮৩৬ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ০৯ শতাংশ। এ পর্যন্ত শনাক্তের হার ২০ দশমিক ২৬ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৬৪ দশমিক ১৬ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৩৬ শতাংশ।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরো জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ১৩ হাজার ৯৭৭টি। আগের নমুনাসহ মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৩ হাজার ৭৪১টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৫ লাখ ১৪ হাজার ১২৬টি। সারাদেশে সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৯২টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা করা হয়।

এছাড়া ২৪ ঘণ্টায় প্রাণহানির শিকার ৪৭ জনের মধ্যে ৩২ জন পুরুষ ও নারী ১৫ জন। এদের মধ্যে রয়েছেন ঢাকা বিভাগে ২৯ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে তিন জন, রাজশাহী বিভাগে দুই জন, খুলনা বিভাগে সাত জন, রংপুর বিভাগে চার জন। বরিশাল ও সিলেট বিভাগে এক জন করে দুই জন রয়েছেন। এদের মধ্যে বাড়িতে তিনজন ও হাসপাতালে ৪৪ জনের প্রাণহানি হয়েছে।

এছাড়া মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা গেছে, ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে ২৬ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১১ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে পাঁচ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে এক জন, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে চার জন রয়েছেন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ৫৬৯ জন। এছাড়া আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ৬৩৪ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন ৬৯ হাজার ৮৬৫ জন। আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র নিয়েছেন ৪৯ হাজার ৭৮১ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ২০ হাজার ৮৪ জন করোনা রোগী।