নিউজ ডেস্ক: মহামারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে শরীফুল ইসলাম (৫৮) নামে এক ব্যবসায়ী ঢাকায় মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)। তিনি নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার বনপাড়া কালিকাপুর বণিক সমিতির সভাপতি।

মঙ্গলবার (২৫ আগস্ট) বেলা সাড়ে তিনটার দিকে ঢাকাস্থ ল্যাব এইড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এর আগে গত ১৫ আগস্ট শ্বাসকষ্ট হলে তাকে জরুরি ভিত্তিতে ঢাকায় ল্যাব এইডে ভর্তি করা হয়। সেখানে আইসিইউ-তে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় মারা যান তিনি।

শরীফুল ইসলাম উপজেলার বনপাড়া পৌর শহরের মহিষভাঙ্গা গ্রামের মৃত আনোয়ারুল হক কবিরাজের বড় ছেলে। এছাড়া তিনি বনপাড়া পৌর মেয়র কেএম জাকির হোসেনের চাচাতো ভাই। মৃত্যুকালীন সময় শরীফুল ইসলাম ১০ বছর বয়সী এক শিশুকন্যা, স্ত্রী, ভাই-বোন, আত্মীয়-স্বজন ও অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

নিহতের পরিবার সুত্রে জানা যায়, কয়েকদিন যাবৎ শরিফুল ইসলাম জ¦র-স্বর্দি ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। পরে তাকে প্রথমে স্থানীয় ক্লিনিকে এবং পরে ১৫ আগস্ট ঢাকার ল্যাব এইড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ১৬ আগস্ট সেখানে করোনা টেস্টের জন্য নমুনা দেন তিনি। পরদিন তিনি করোনা পজিটিভ রিপোর্ট পান।

শরীফুল ইসলামের মৃত্যুতে বনপাড়ায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। তার মুত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন নাটোর-৪ (বড়াইগ্রাম-গুরুদাসপুর) আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী, পৌর মেয়র কেএম জাকির হোসেন, ভাইস চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা ও সুরাইয়া আক্তার কলি, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস মিয়াজী, সাধারণ সম্পাদক এড. মিজানুর রহমান মিজান প্রমুখ। এসময় তারা মরহুমের বিদেহী আত্মা মাগফেরাত কামনা করেছেন।