নিজস্ব প্রতিবেদক: গুরুদাসপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মনির হোসেন ও গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সেলিম রেজাকে প্রত্যাহারের নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সেলিম রেজাকে প্রত্যাহারের সত্যতা স্বীকার করেছেন নাটোরের পুলিশ সুপার সাইফুল্লাহ আল মামুন। এছাড়া গুরুদাসপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মনির হোসেনও প্রত্যাহারের সত্যত্যা স্বীকার করেছেন।

বুধবার (৬ মার্চ) রাতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় বাংলাদেশ সচিবালয়ের সহকারী সচিব শাহীদুর রহমান স্বাক্ষরিত এই আদেশের চিঠি ফ্যাক্সের মাধ্যমে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের বরাবর এসে পৌঁছে। এর একটি করে কপি গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সেলিম রেজা ও গুরুদাসপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মনির হোসেনের কাছেও পৌঁছানো হয়।

জানা গেছে, আওয়ামী লীগ মনোনীত উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী ও গুরুদাসপুর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহিদুল ইসলামের অভিযোগের প্রেক্ষিতে গুরুদাসপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মনির হোসেন এবং গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সেলিম রেজাকে প্রত্যাহারের নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

নৌকা মার্কার প্রার্থী জাহিদুল ইসলাম জানান, গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সেলিম রেজা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মনির হোসেন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রশাসনিক কোনো দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করবেন না বলে তার মনে হয়। পরে তিনি বিষয়টি এলাকায় খোঁজ করেন এবং এর সত্যতা পান। এরপর তিনি বিভিন্ন স্থানে নৌকার বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার বেশ কিছু ছবিসহ নির্বাচন কমিশন বরাবর অভিযোগ করেন। এই অভিযোগের প্রেক্ষিতে নির্বাচন কমিশন আগামি তিন দিনের মধ্যে তাদের প্রত্যাহারের নির্দেশ দিয়েছে।