নিউজ ডেস্ক: আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী শাহনেওয়াজ আলী (নৌকা) ও তার সমর্থকদের বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘন করে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আরিফুল ইসলাম বিপ্লবের (নারিকেল গাছ) নির্বাচনী অফিস ভাংচুর, কর্মীদের মারধোর ও পোস্টার ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ করা হয়েছে।

শনিবার (২ জানুয়ারি) বিকাল তিনটায় চাঁচকৈড় চৈতালীহাট মোড়ে নির্বাচনী কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব অভিযোগ করেন গুরুদাসপুর পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আরিফুল ইসলাম বিপ্লব।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম নজরুল ইসলাম, পৌর আ’লীগের সহসভাপতি রাজ কুমার কাশি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম সবুজ ও সিরাজুল ইসলাম, উপজেলা ট্রাক ট্যাঙ্ক লরি শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মাসুদ সরকার, আওয়ামী লীগ নেতা সুলতান প্রমুখ।

আরিফুল ইসলাম বিপ্লব অভিযোগ করে জানান, নির্বাচনী মাঠে তার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীর সমর্থক প্রিন্স মোল্লা, ফারুক মোল্লা, তারেক মোল্লা, স্বাধীন মোল্লাসহ অন্তত ২০/২৫ জনের একটি দল শুক্রবার রাতে তার পৃথক দুটি কার্যালয় এবং মোটরসাইকেল ভাংচুর করেছেন। এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে তার পোষ্টারও ছিঁড়ে ফেলা হয়েছে। এসব ঘটনায় তারা গুরুদাসপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন বলেও জানান তিনি।

এদিকে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহনেওয়াজ আলী তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, বিদ্রোহী প্রার্থী আরিফুল ইসলাম বিপ্লবকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এ কারণে ক্ষিপ্ত হয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী বিপ্লব উল্টো আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করছেন।

প্রতিবেদক: মো. আখলাকুজ্জামান