নিজস্ব প্রতিবেদক: গুরুদাসপুরে মশিন্দা ফাজিল মাদ্রাসার দাখিল পরীক্ষা কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীদের নকল সরবরাহ করার সময় ৯ জনকে আটক করেছে র‌্যাব-৫।

সোমবার (১১ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মনির হোসেন পাবলিক পরীক্ষা নিয়ন্ত্রণ আইন ১৯৮০ এর ১১ ধারার অপরাধে ঘটনাস্থলে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে ওই চক্রের সদস্যদের ৩ লাখ ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করে রায় প্রদান করেন।

জানা যায়, সোমবার বেলা ১২টার দিকে উপজেলার মশিন্দা ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে ওই ঘটনা ঘটে। ওই রায়ে উপজেলার গোপিনাথপুর দাখিল মাদরাসার শিক্ষক সাকিম উদ্দিন, বাউপাড়া গ্রামের আঃ জলিলের ছেলে আলমগীর হোসেন, বাহাদুরপাড়া গ্রামের শওকত আলীর ছেলে আবু বকর ও একই গ্রামের আমজাদ হোসেনের ছেলে আমানত হোসেন নামের চার জনের প্রত্যেকে ৫০ হাজার টাকা করে এবং জুমাইনগর গ্রামের ওমর আলীর ছেলে আরিফুল ইসলাম, ছলিম উদ্দিনের ছেলে হারেজ আলী, শিকারপাড়া গ্রামের আয়নাল হকের ছেলে নয়ন, বাহাদুর পাড়ার ছালেম বক্সের ছেলে ফরহাদ হোসেন, বড়াইগ্রাম উপজেলার পারকুল গ্রামের জালাল উদ্দিনের ছেলে আরিফুল ইসলামসহ পাঁচ জনকে ২৫ হাজার করে মোট ৩ লাখ ২৫ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।ইংরেজী দ্বিতীয়পত্রের পরীক্ষা চলাকালীন সময় অভিযুক্তরা জানালা দিয়ে নকল সরবরাহের চেষ্টা করে বলে জানা যায়। এসময় র‌্যাবের এএসপি আওয়াল হোসেনের নেতৃত্বে র‌্যাব সদস্যরা তাদের আটক করে।

র‌্যাব-৫, রাজশাহীর সিপিসি-২ নাটোর ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার এএসপি মোঃ আউয়াল হোসেন খান বলেন, গুরুদাসপুর উপজেলার শিকারপাড়া এলাকায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে দাখিল পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসকারী ও নকল সরবরাহ চক্রের সদস্যদের গ্রেফতার করা হয়।