নিউজ ডেস্ক: মহামারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত নায়িকা সাদিকা পারভীন পপি। তিনদিন আগে করোনা টেস্ট করালে বৃহস্পতিবার তার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন তিনি।

শুক্রবার (২৪ জুলাই) বিকালে মুঠোফোনে পপির ছোট ভাই জানান, জ্বর, গলাব্যথা, কাশির সঙ্গে কিছুটা শ্বাসকষ্ট রয়েছে আপুর। এগুলো কমলে আবারও পরীক্ষা করা হবে। বর্তমানে খুলনার খালিশপুরে নিজের বাড়িতে চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে চিকিৎসা নিচ্ছেন ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় এই নায়িকা।

জানা গেছে, প্রায় পাঁচ মাস আগে পপি নিজ এলাকা খুলনায় গিয়েছিলেন। এরপরই বাংলাদেশ করোনা আক্রান্ত হয়। তখন তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেছিলেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে ঢাকায় ফিরবেন না। সেখানেই নিরাপদে থাকতে চান। এরমধ্যে নিজের সামর্থ্যের মধ্যে কয়েকবার খালিশপুর ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় অসচ্ছল মানুষদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন পপি।

ভক্তদের কাছে দোয়া চেয়ে পপি জানান, কয়েকদিন ধরে শরীরটা ভালো যাচ্ছিল না। পরিবারের পরামর্শে করোনাভাইরাস পরীক্ষা করালাম। অবশেষে পজিটিভ রেজাল্ট আসলো। বর্তমানে জ্বর, গলাব্যথা, কাশির সঙ্গে কিছুটা শ্বাসকষ্টও রয়েছে। চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে বাসায় আইসোলেশনে আছি। আগামী সপ্তাহে দ্বিতীয়বার করোনা টেস্ট করবো।

তিনি আরো বলেন, মানুষকে ত্রাণ দিতে গিয়েই হয়তো বা আমি করোনায় আক্রান্ত হয়েছি। কারণ, এর জন্য আমাকে বেশ কয়েকবার রাস্তায় বের হতে হয়েছে। এমনকী রাতেও মানুষকে সাহায্য করেছি। বর্তমানে বাসায় আইসোলেশনে থাকলেও এখনই হাসপাতালে যাওয়ার প্রয়োজন বোধ করছি না।

প্রসঙ্গত, ১৯৯৭ সালে মনতাজুর রহমান আকবরের কুলি ছবিতে অভিনয়ের মধ্যদিয়ে চলচ্চিত্রে পা রাখেন পপি। বাংলাদেশের চলচ্চিত্র ইতিহাসে অন্যতম আবেদনময়ী এই অভিনেত্রী মেঘের কোলে রোদ, কি যাদু করিলা, গঙ্গাযাত্রা ছবিতে অভিনয়ের করে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী হিসেবে তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন।