নিউজ ডেস্ক: দেশে করোনায় একদিনে (গত ২৪ ঘণ্টায়) আরো ৫০ জনের প্রাণহানি হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ২ হাজার ৬৬৮ জন করোনা রোগীর প্রাণহানি হলো। একই সময়ে ২ হাজার ৯২৮ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট করোনা রোগী শনাক্ত হলো ২ লাখ ৭ হাজার ৪৫৩ জন।

সোমবার (২০ জুলাই) দুপুর আড়াইটায় করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত অনলাইন স্বাস্থ্য বুলেটিনে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা এ তথ্য জানান।

সারাদেশে ৮০টি ল্যাবের মধ্যে সরকারি ও সরাকারি ব্যবস্থাপনায় ৪৮টি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৩২টি ল্যাব চালু আছে মন্তব্য করে তিনি আরো জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১৩ হাজার ৩২৯টি। আগের নমুনাসহ মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৩ হাজার ৩৬২টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১০ লাখ ৪১ হাজার ৬৬১টি।। মোট আক্রান্ত ২ লাখ ৭ হাজার ৪৫৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২১ দশমিক ৯১ শতাংশ।

ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৫০ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ৩৫ জন ও নারী ১৫ জন। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ২ হাজার ৬৬৮ জন। এ পর্যন্ত যারা মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের মধ্যে পুরুষের সংখ্যা ২ হাজার ১০৪ জন আর নারী ৫৬৪ জন।

তিনি আরো জানান, বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা বিভাগে ২১ জন, চট্টগ্রামে ৭ জন, রাজশাহীতে ৫ জন, সিলেটে ৩ জন, খুলনায় ১০ জন, বরিশাল ও রংপুরে একজন করে জন মারা গেছেন।

ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, এ পর্যন্ত ঢাকা বিভাগে এক হাজার ৩০৫ জন, চট্টগ্রামে ৬৭৩ জন, রাজশাহী ১৪৪, খুলনায় ১৭৩ জন, বরিশালে ১০০ জন, রংপুরে ৯০, সিলেটে ১২৫ এবং ময়মনসিংহে ৫৮ জন মারা গেছেন।

তিনি আরো জানান, ঢাকা সিটিসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ও বাড়িতে উপসর্গ বিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৯১৪ জন এ পর্যন্ত সুস্থ ১ লাখ ১৩ হাজার ৫৫৬ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫৪ দশমিক ৭৪ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৯ শতাংশ।

ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ৮২৩ জন ও আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ৮০২ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন ৪২ হাজার ৯৭০ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১৮ হাজার ৬১২ জন।