নিউজ ডেস্ক: বাগেরহাটের শরণখোলায় পারিবারিক কলহের জেরে দ্বিতীয় স্ত্রীকে (৩৫) শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগে সাদ্দাম হোসেন নামে এক পুলিশ সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাগেরহাটের পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায়।

বৃহস্পতিবার (৮ অক্টোবর) রাতে সাদ্দাম হোসেনকে পুলিশ গ্রেফতার করে। নিহত জোৎসনার লাশ শরণখোলা থানা পুলিশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। জোৎসনা ও সাদ্দাম হোসেন শরণখোলা সদরের একটি ভাড়া বাসায় থাকতেন।

সাদ্দাম হোসেন সাতক্ষীরা জেলার আশাশুনি উপজেলার বড়ধাল গ্রামের আব্দুল লতিফ গাজীর ছেলে। পুলিশ কনস্টেবল সাদ্দাম শরণখোলা উপজেলার থাফালবাড়ী পুলিশ ফারিতে কর্মরত ছিলেন।

এ ব্যাপারে শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইদুর রহমান জানান, বুধবার রাতের কোনো এক সময় সাদ্দাম হোসেন তার স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন। পরে জবাই করে পলিথিনে মুড়িয়ে বস্তাবন্দি করে লাশ পরিত্যক্ত ঘরে লুকিয়ে রাখেন। গোপন সংবাদের মাধ্যমে খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে বস্তাবন্দি মরদেহ উদ্ধার করে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বাগেরহাটের পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায় বলেন, পারিবারিক কলহের কারণে পুলিশ সদস্য সাদ্দাম হোসেন তার স্ত্রীকে হত্যা করেছেন। আমরা সাদ্দাম হোসেনকে গ্রেফতার করেছি। এছাড়া সাদ্দামের স্ত্রীর ময়না তদন্তের জন্য মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনার প্রকৃত কারণ উদঘাটনের চেষ্টা করছি।