নিউজ ডেস্ক: নাটোরের নলডাঙ্গায় শনিবার রাতে এক সার ব্যবসায়ীকে হত্যা করে ৩ লাখ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নলডাঙ্গা থানার ওসি নজরুল ইসলাম।

শনিবার (২১ নভেম্বর) রাত সাড়ে আটটার দিকে নলডাঙ্গা ব্রিজ এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। আহত অরুণ শর্মা নলডাঙ্গা পৌর এলাকার সোনাপাতিল মহল্লার মৃত কালীমোহন শর্মার ছেলে। আটক তিনজন হলেন, একই এলাকার মৃত মনিরুল ইসলাম ওরফে আবু বক্করের ছেলে আব্দুর রশিদ (৩০), খবির শেখের ছেলে মো. রকি শেখ (২৪) ও রবিউল ইসলামের ছেলে মিজানুর রহমান ওরফে মো. নাহিদ হোসেন (৩০)।

নিহত ব্যবসায়ী অরুণ শর্মার পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, শনিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে নলডাঙ্গা বাজারে দোকান বন্ধ করে বাড়ি ফিরছিলেন ব্যবসায়ী অরুণ শর্মা। ব্রিজ থেকে নামার সময় পিছন দিক থেকে ছিনতাইকারীরা শক্ত কিছু দিয়ে মাথায় আঘাত করে।

পরে অরুণের কাছে থাকা ৩ লাখ টাকা নিয়ে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় ক্লিনিক ও পরে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে নেয়ার পথে রাত সাড়ে এগারোটার দিকে তার মৃত্যু হয়।

এদিকে নিহতের স্ত্রী শ্যামলী শর্মা জানান, মৃত্যুর আগে তার স্বামী তাকে জানিয়েছিলেন, দোকান থেকে তিন লাখ টাকার তিনটি বান্ডিলসহ দোকানের কেনা-বেচার টাকাসহ প্রায় ৫ লাখ টাকা নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। বাড়ি থেকে অদূরে রাস্তায় ওৎপেতে থাকা ৩/৪ জন যুবক হঠাৎ পেছন থেকে লোহার পাইপ দিয়ে মাথায় আঘাত করে টাকার ব্যাগ ছিনিয়ে নিয়ে যায়। তিনি এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার চান।

এছাড়া স্থানীয়রা জানান, পুলিশের হাতে আটক রশিদ, রকি ও নাহিদসহ ৪/৫ জন যুবককে শনিবার সন্ধ্যার দিকে ঘটনাস্থলের আশপাশেই ঘোরাফেরা ও বসে আড্ডা দিতে দেখা গেছে। তারা এলাকায় নানা ধরনের অপকর্ম করে বেড়াচ্ছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নলডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, সার ব্যবসায়ী অরুণ শর্মার হত্যার ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিনজনকে আটক করা হয়েছে।