নিজস্ব প্রতিবেদক: নলডাঙ্গা উপজেলার সমসখলসী গ্রামে ধানের শীষে ভোট দেওয়াকে কেন্দ্র করে বাকবিতণ্ডায় ভাতিজার হাতে চাচা খুন হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। নলডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শফিকুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

রোববার (৩০ ডিসেম্বর) সকাল ১১টার দিকে এ হামলার ঘটনা ঘটে। হাসপাতালে নেওয়ার পর তার মৃত্যু হয়। নিহত হোসেন আলি বিপ্র বেলঘরিয়া ইউনিয়নের দুই নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সদস্য বলে নিশ্চিত করেছেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোসাদ্দেকুল ইসলাম বাদশা।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, ভাতিজা বউ ধানের শীষে ভোট দেওয়ায় চাচা হোসেন আলি তাকে বকাঝকা করেন। এ নিয়ে তার ভাতিজার বউ প্রতিবাদ করলে তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। এসময় রতন এসে স্ত্রীর পক্ষ নিয়ে চাচার সঙ্গে বাকবিতণ্ডা শুরু করে। এর এক পর্যায়ে রতন ধারালো অস্ত্র দিয়ে চাচা রতনকে আঘাত করে। গুরুতর আহতাবস্থায় তাকে সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এব্যাপারে সমসখলসী উচ্চ বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার নয়ন চন্দ্র প্রামাণিক জানান, ছুরিকাঘাতের ঘটনা কেন্দ্র থেকে অন্তত এক কিলোমিটার দূরে হওয়ায় ভোট কেন্দ্রে এর কোনো প্রভাব পড়েনি। কেন্দ্রের মোট দুই হাজার ২১৭ জন ভোটারের মধ্যে বেলা ১২টা পর্যন্ত ৪২ শতাংশ ভোটার ভোট দিয়েছেন।

নলডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শফিকুর রহমান জানান, চাচা-ভাতিজার মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে পারিবারিক বিষয় নিয়ে দ্বন্দ্ব ছিল। সকালে ভোট দিয়ে আসার সময় এ নিয়ে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে ভাতিজা রতন চাচা হোসেন আলীকে ‍ছুরিকাঘাত করে। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পরে তার মৃত্যু হয়।

নাটোরের পুলিশ সুপার সাইফুল্লাহ আল মামুন জান‍ান, নির্বাচনের সঙ্গে এই ঘটনার সংশ্লিষ্টতা নেই।