নিউজ ডেস্ক: নাটোরের মো. হারুন অর রশিদ খাঁন (২৫) নামে এক ব্যক্তিকে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও দুদক কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে প্রতারণা করার অভিযোগে ঢাকার সাভার থেকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব-৪ এর সহকারী পরিচালক (অপস) সহকারী পুলিশ সুপার জিয়াউর রহমান চৌধুরী।

রোববার (৩০ আগস্ট) দুপুর পৌনে ১টার দিকে র‌্যাব-৪ এর একটি দল সাভার থানাধীন সিআরপি রোডের ডগরমোড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে। তার বাবা নাম আকতার হোসেন খাঁন আর মায়ের নাম হামিদা আকতার বানু।

এসময় তার কাছে দুদকের ভুয়া আইডি কার্ড, র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের দুটি বদলি প্রজ্ঞাপন, একটি ওয়ারলেস সেট, দুটি কাস্টমস অফিসারের ক্যাপ, একটি পুলিশ ক্যাপ, তিনটি জ্যাকেট, একটি ক্রেস্ট ও তিনটি মোবাইল ফোন পাওয়া যায়।

র‌্যাব জানায়, মো. হারুন অর রশিদ র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও দুদক কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন অবৈধ কাজের সহায়তা এবং চাকরি দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে ভিন্ন ভিন্ন মানুষের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিতো।

সাম্প্রতিক সময়ে ভুয়া পরিচয় প্রদান করে অভিনব কৌশল ব্যবহার করে সাধারণ জনগণের কাছ থেকে বিভিন্ন প্রতারণার মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে এক শ্রেণির নব্য প্রতারক চক্র। পরে সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে ওই এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে প্রতারক হারুন অর রশিদকে আটক করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে র‌্যাব-৪ এর সহকারী পরিচালক (অপস) সহকারী পুলিশ সুপার জিয়াউর রহমান চৌধুরী গণমাধ্যমকে জানান, গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তি কয়েক বছর ধরে সাভার, আশুলিয়া, ধামরাই, লালবাগসহ ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় নিজেকে কখনো র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, কখনো দুদকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা আবার কখনো কাস্টমস কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে আসছিলেন।

আটক হারুন অর রশিদ লালবাগ থানা এবং দায়রা আদালতের মামলার পলাতক আসামি। এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এছাড়া অসাধু চক্রের বিরুদ্ধে র‌্যারের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান এএসপি জিয়াউর।