ছবি: প্রতীকী

নিউজ ডেস্ক: নাটোরে বাড়িতে নিজ বাড়িতে ছুরিকাঘাতে জাহানারা বেগম (৬০) নামে এক নারীকে হত্যা করেছে সোহান (১৬) নামের এক তরুণ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম।

বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) গভীর রাতে এই ঘটনা ঘটে। নিহত জাহানারা বেগম একই এলাকার অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মাজেদ খান চৌধুরীর স্ত্রী। সোহান একই এলাকার সাইফুল ইসলামের ছেলে।

পুলিশ ও পরিবার সুত্রে জানা যায়, কান্দিভিটা মহল্লার সাইফুল ইসলাম নিচাবাজারের মাজেদ খান বাজার চৌধুরী পাড়ায় মাজেদ চৌধুরীর বাসায় ভাড়া খাকতেন। সম্প্রতি সে বাসা পরিবর্তন করে সালেম খান চৌধুরীর বাসায় ভাড়া উঠেন। মাজেদ খান চৌধুরীর বাসায় ভাড়া থাকার সুবাদে সাইফুলের ছেলে সোহান বাসার কোথায় কি আছে তা ভাল ভাবেই জানতো। গতকাল বুধবার সোহান দিনের কোন এক সময় মাজেদ খান চৌধুরীর বাসায় ঢুকে আত্মগোপন করে থাকে। গভীর রাতে সে চুরি করা শুরু করে। এক পর্যায়ে জাহানারা চৌধুরীর রুমে ঢুকে স্বর্নালংকার হাতিয়ে নেওয়ার সময় জাহানারা চৌধুরীর ঘুম ভেঙ্গে যায়। এসময় সে সোহানকে জাপটে ধরলে সোহান উপুর্যপরি জাহানারা চৌধুরীকে ছুরকাঘাত করে জানালার গ্রীল ভেঙ্গে পালিয়ে যায় । পরে বাড়ির লোকজনের চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে সদর দরজা বন্ধ থাকায় জানালার গ্রীল ভেঙ্গে ভিতরে ঢুকে জাহানারা চৌধুরীকে উদ্ধার করে নাটোর সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসাদীন অবস্থায় জাহানারার মৃত্যু হয়। মৃত্যুর আগে জাহানারা হত্যাকাণ্ডের বর্ণনা দিয়ে যান।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম জানান, পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছে। এ ব্যাপারে থানায় হত্যায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।