নিউজ ডেস্ক: নাটোরে নতুন করে আরো ১০ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এর মধ্যে সদর উপজেলায় ২ জন, সিংড়া উপজেলায় ২ জন, গুরুদাসপুর উপজেলায় ২ জন ও লালপুর উপজেলায় ৪ জন রয়েছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নাটোরের সিভিল সার্জন ডাঃ কাজী মিজানুর রহমান।

শনিবার (১৮ জুলাই) রাতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ল্যাবরেটরি থেকে ৪২ টি নমুনা পরীক্ষার ফলাফল এসেছে। এর মধ্যে ১০ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এনিয়ে নাটোর জেলায় মোট আক্রান্ত হলেন ৩৫০ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১১৫ জন। এছাড়া ১ জন মৃত্যুবরণ করেছেন।

জানা গেছে, নাটোর সদর উপজেলায় পাইকৈরদুল এলাকার নিপেন্দ্রনাথ করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি জনতা ব্যাংক প্রিন্সিপাল শাখায় চাকুরি করেন। এছাড়া নাটোর শহরের বাসিন্দা আনিসুর রহমান আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি সিলেট চাকুরি করেন।

এছাড়া নাটোরের সিংড়া উপজেলার উজ্জল হালদার ও ওপেন হালদার নামে পিতা-পুত্র করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। পিতা গোপেন হালদার মাছের ব্যবসা করলেও ছেলে উজ্জল হালদার আইসিটি বিভাগে ঢাকায় চাকুরি করেন।

এদিকে গুরুদাসপুরের চাচকৈর ইসলামী ব্যাংক শাখা দুইজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের একজনের সাইফুল ইসলাম অপরজন উজ্জ্বল হোসেন। তারা বসবাস করেন গুরুদাসপুর উপজেলায়।

এছাড়া লালপুরের কাঠালবাড়ি এলাকার আশরাফুল ইসলাম নামে এক টেইলার্স কর্মী করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। আর বিলমাড়িয়া এলাকার স্কুল শিক্ষক আক্কাস আলী করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

অন্যদিকে লালপুরের দেবরপাড়ায় রফিকুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি মাদারীপুরে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রনালয়ে চাকুরি করেন। এছাড়া অর্জুন পূর্বহাটি এলাকার আব্দুল মতিন নামে একজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি পরমাণুতে চাকরির আবেদন করেছিলেন বলে জানা গেছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নাটোরের সিভিল সার্জন কাজী মিজানুর রহমান জানান, নাটোরে নতুন করে আরো ১০ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৩৫০ জন। সুস্থ হয়েছেন ১১৫ জন, এছাড়া মৃত্যুবরণ করেছেন ১জন।