নিউজ ডেস্ক: নাটোরে আরো ১০ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া আরো একজন ফলোআপ (আগেই করোনা আক্রান্ত ছিলেন, পরে আবার নমুনা পরীক্ষায়ও পজিটিভ) রোগীর পজিটিভ ফলাফল এসেছে। এর মধ্যে নতুন করে নাটোর সদর উপজেলায় ৫ জন, সিংড়ায় ১ জন ও লালপুরে ৪ জন রয়েছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নাটোরের সিভিল সার্জন অফিস।

রোববার (২৩) রাতে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ ল্যাব থেকে ৮১ জনের নমুনা পরীক্ষার ফলাফল এসেছে। এর মধ্যে ১০ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। অন্য ৭০ জনের নেগেটিভ ফলাফল এসেছে। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা আক্রান্ত হলেন ৭৮৭জন।

এর মধ্যে বড়াইগ্রামের বনপাড়া খ্রিস্টান ক্যাথলিক চার্চের সিস্টার মেরী অর্পিতা এসএমআরএ (৬৫) ও পুলিশ কর্মকর্তা সুমন আলীসহ মারা গেছেন ছয়জন। অন্য চারজন মারা যাওয়ার পর সংগৃহীত নমুনায় করোনা পজিটিভ ছিলেন বলে ফলাফল এসেছে।

নাটোর সদর উপজেলায় করোনায় আক্রান্তদের মধ্যে শহরের মাদ্রাসা মোড় এলাকায় নিটল মটরসের শো-রুমে কর্মরত একজন কর্মী রয়েছেন। এছাড়া নীচাবাজারে এক ব্যবসায়ীর বোন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর আগে তার ভাই করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন।

অন্যদিকে বাগাতিপাড়ায় কর্মরত একজন শিক্ষিকা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তবে তার বাড়ি নাটোর শহরের হাজরা নাটোর এলাকায়। এছাড়া নাটোর সদরের একজন শিক্ষার্থী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। অপরদিকে সিংড়া উপজেলার ডাহিয়া ইউনিয়নের কমিউনিটি হেলথ প্রোভাইডার করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

এছাড়া রুপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে একজন চাকুরি প্রার্থী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। অন্যদিকে মোহরকয়া এলাকার এক কৃষক ও বিলমাড়িয়া এলাকার পল্লী চিকিৎসক রয়েছেন নতুন করে করোনা আক্রান্তের তালিকায়। এছাড়া লালপুর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানের পিতার ফলোআপ (আগেই করোনা আক্রান্ত ছিলেন, পরে আবার নমুনা পরীক্ষায়ও পজিটিভ) করোনা পজিটিভ ফলাফল এসেছে।