নিউজ ডেস্ক: নাটোরে আরো ১৫ জনের করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্তদের মধ্যে নাটোর সদর উপজেলায় ৩ জন, সিংড়ায় ৫ জন, লালপুরে ৬ জন ও গুরুদাসপুরে ১ জন রয়েছেন। এছাড়া আরো বেশ কয়েকজনের ফলোআপ (আগেই করোনা আক্রান্ত ছিলেন, পরে আবার নমুনা পরীক্ষায়ও পজিটিভ) রোগীর পজিটিভ ফলাফল এসেছে।

সোমবার (২৪ আগস্ট) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নাটোরের সিভিল সার্জন কাজী মিজানুর রহমান। আজ ৫২ জনের নমুনা পরীক্ষা ১৫ জন করোনা শনাক্ত হয়। এ নিয়ে জেলায় মোট ৮০২ জন।

জানা গেছে, নাটোর শহরের কানাইখালী এলাকার প্রাইম ব্যাংকের এক কর্মকর্তা, বঙ্গজ্জল এলাকার একটি স্কুলের অফিস সহকারী, বিশ্বজিৎ নামে এক ব্যবসায়ী ও এক নারী নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

এছাড়া সিংড়া উপজেলার কলম ইউনিয়নের কলম গ্রামের দুই কৃষক, কমিউনিটি ক্লিনিকের এক স্বাস্থ্যকর্মী ও অগ্রণী ব্যাংকের ২ কর্মকর্তা নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তবে তাদের বাড়ি নাটোর শহরে। এছাড়া সিংড়া থানার এক পুলিশ কর্মকর্তার ফলোআপ (আগেই করোনা আক্রান্ত ছিলেন, পরে আবার নমুনা পরীক্ষায়ও পজিটিভ) রোগীর পজিটিভ ফলাফল এসেছে।

এদিকে লালপুরের নাসির গ্লাস কোম্পানীর এক সাবেক কর্মচারী, নবীনগর এলাকার এক হার্ডওয়ার ব্যবসায়ী, ভাবনীপুর ও রামকৃঞ্চপুর গ্রামের দুুই কৃষক, ধুপইল এলাকায় রাজশাহী নিউ ডিগ্রী কলেজের এক ছাত্র ও এক রাজমিস্ত্রী করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

অন্যদিকে গুরুদাসপুরে চাঁচকৈড় এলাকায় ৮৩ বছর বয়সী এক প্রবীণ এক ব্যক্তি নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া এক ব্যবসায়ী ও সরকারি প্রকল্পের এক নারী কর্মকর্তার ফলোআপ (আগেই করোনা আক্রান্ত ছিলেন, পরে আবার নমুনা পরীক্ষায়ও পজিটিভ) রোগীর পজিটিভ ফলাফল এসেছে।