নিউজ ডেস্ক: নাটোরে গুরুদাসপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) তমাল হোসেনসহ ১৩ জন করোনায় আক্রান্ত বলে শনাক্ত হয়েছেন। এর আগে ইউএনও তমাল হোসেনের স্ত্রীও করোনায় আক্রান্ত হন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নাটোরের সিভিল সার্জন ডাঃ মিজানুর রহমান।

শনিবার (১১ জুলাই) রাতে নাটোরের সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা যায়, আক্রান্তদের মধ্যে বড়াইগ্রাম উপজেলায় ৮ জন, গুরুদাসপুর উপজেলায় ইউএনও তমাল হোসেনসহ ২ জন, নাটোর সদর উপজেলায় ২ জন ও বাগাতিপাড়া উপজেলায় ১ জন রয়েছেন। এ নিয়ে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২৯৫ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৯৭ জন।

নাটোর সিভিল সার্জন অফিসের সিনিয়র মেডিকেল টেকনোলজিষ্ট হাফিজার রহমান জানান, গুরুদাসপুরের ইউএনও তমাল হোসেন ও একই উপজেলার শ্রীপুর গ্রামের রাসেল নামে একজনের করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া নাটোর সদরের একডালা এলাকার হাবিবুর রহমান ডিসি অফিসের একজন কর্মকর্তার স্ত্রী ফাতেমা বিনতে আফসারী করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

অন্যদিকে বড়াইগ্রামের আহমেদপুরের আব্দুর রাজ্জাক করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি গুরুদাসপুর কৃষি অফিসের সহকারী কৃষি উন্নয়ন কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। এছাড়া চান্দাই গ্রামের রুবেল হোসেন শ্রীপুরের এনামুল, কালিকাপুরের মোস্তাক আহমেদ, বনপাড়া বাজারের ভুষি মালের ব্যবসায়ী মোতালেব হোসেন, রাজেন্দ্রপুরের অব্দুল জব্বার, রাজাপুর বাজারের দোকান কর্মচারী হান্নান, কাচুটিয়ার নাসিমা ও বাগাতিপাড়া উপজেলার মিশ্রিপাড়া গ্রামের আবুল কালাম করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।