নিউজ ডেস্ক: নাটোরে পুলিশ, সাংবাদিক ও চিকিৎসকসহ একদিনে সবোর্চ্চ ৫৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছেন। এর মধ্যে ৩ জনের (আগেই করোনা আক্রান্ত) ফলোআপ রিপোর্ট রয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট ৫৪৫ জন করোনায় আক্রান্ত হলেন। আর সুস্থ হয়ে উঠেছেন অন্তত ২২৬ জন করোনা আক্রান্ত রোগী।

রোববার (২ আগস্ট) রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিভিল সার্জন অফিসের টেকনোলজিস্ট হাফিজুর রহমান। এর মধ্য নাটোর সদরে ২৭ জন, বড়াইগ্রামে ১৭ জন, সিংড়ায় ১জন ও বাগাতিপাড়ায় ৭জন রয়েছেন। করোনা আক্রান্তদের বেশিরভাগই স্বাস্থ্যকর্মী।

জানা গেছে, আজকের করোনা আক্রান্তদের মধ্যে নাটোর প্রেসক্লাবের সভাপতি ও বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি) এর নাটোর জেলা প্রতিনিধি মোহাম্মদ জালাল উদ্দিন রয়েছেন। তবে তিনি বর্তমানে সুস্থ রয়েছেন তার মধ্যে করোনার কোনো উপসর্গ নেই। তবুও তিনি হোম আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসকের পরামর্শে চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করছেন।

এছাড়া করোনা আক্রান্ত হয়েছেন নাটোর-২ (সদর-নলডাঙ্গা) শফিকুল ইসলাম শিমুলের পিএস আকরামুল ইসলামের সহকারী দিঘাপতিয়া গ্রামের আতিকুর রহমান, নাটোর সদরে জেলা প্রশাসকের মেয়ে রাফিয়া খাতুন, জেলা প্রশাসকের গাড়ী চালক দুদু মিয়া, জেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের স্টাফ মতিউর রহমান, নাটোর সিভিল সার্জন অফিসের স্টাফ মোজাহিদুল ইসলাম, সামসুন্নার খাতুন, মাসুদ রহমান, নুরুল ইসলাম, শহিদুল ইসলাম, সুলতান আহমেদ, আরিফুজ্জামান, হাসিনা আলম।

এছাড়া নাটোর সদর উপজেলায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন নাটোর জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার আইও-১ ইব্রাহীম হোসেন, এসআই আশরাফুল ইসলাম, র‌্যাব-৫ সদস্য আশরাফুল ইসলাম, নাটোর সদর হাসপাতালের স্টাফ নার্স মুসলিমা খাতুন, গোবিন্দপুর এলাকার ব্যবসায়ী ইব্রাহীম হোসেন, বড়গাছা এলাকার শাহানা খাতুন, উত্তর বড়গাছা এলাকার বজলুর রশিদ। আর শহিদুল ইসলাম ও মোশারফ হোসেন নামের দু ব্যক্তির ঠিকানা জানা যায়নি।

অপরদিকে বাগাতিপাড়া উপজেলায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন পুলিশের সদস্য আশরাফুল ইসলাম, আব্দুল আলিম, মোস্তাফিজুর রহমান, নাজমুল ইসলাম, আব্দুস সালাম হাফিজার রহমান দুলাল হোসেন ও সাইফুল ইসলাম।

এছাড়া বড়াইগ্রামে উপজেলায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন বনপাড়া আমেনা হাসপাতালের স্টাফ আব্দুল আলিম, শোম্ভু. মোজাম্মেল আব্দুল হালিম, আলমগীর, রনি, পাটোয়ারী জেনারেল হাসপাতালের স্টাফ উল্লাাস, মনোয়ার হাসেন, সুজন, আমির হোসেন, মিজানুর রহমান, বড়াইগ্রাম থানার স্টাফ রবিউল ইসলাম, বড়াইগ্রাম উপজেলা সদরের আবু বকর সিদ্দিক, বড়াইগ্রাম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্টাফ নজরুল ইসলাম, বনপাড়া নতুন বাজারের ব্যবসায়ী সোহেল রানা, বনাপাড়ার গৃহিনী ফেরদৌসী সুলতানা ও ছাত্রী তাসনুভা। আর সিংড়া উপজেলায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্টাফ মোমিনুল ইসলাম।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সিভিল সার্জন অফিসের টেকনোলজিস্ট হাফিজুর রহমান জানান, রোববার রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নাটোর জেলার মোট ১৫২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ৫৫টি পজিটিভ ও ৯৭টি নেগেটিভ ফলাফল এসেছে।