নাটোরে করোনার তাণ্ডব: ডিসিসহ করোনা আক্রান্ত ৩২

নিউজ ডেস্ক: নাটোরে জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহম্মদ শাহরিয়াজ, সিভিল সার্জন ডা. কাজী মিজানুর রহমান, নাটোর নাটোর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) আবুল হাসনাত ও তার স্ত্রী, ২ সন্তান, বোন ও একাধিক স্বাস্থ্যকর্মীসহ নাটোরে ৩২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা হলো ৪৩৯ জন। আর সুস্থ হয়েছেন ১৬৭ জন।

মঙ্গলবার (২৮ জুলাই) জেলা স্বাস্থ্য বিভাগসহ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি ও সরকারি সংস্থাগুলো বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। এর মধ্যে নাটোর সদরে ১৫ জন, বড়াইগ্রামে ১০ জন এবং গুরুদাসপুরে ৭ জন রয়েছেন। তবে সিভিল সার্জন অফিস থেকে ৩০ জন আক্রান্ত হওয়ার কথা স্বীকার করলেও আক্রান্তদের বিস্তারিত তথ্য আগামীকাল দেয়া হবে বলে জানিয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলা সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল টেকনোলজিষ্ট হাফিজার রহমান জানান, গত ১৯ জুলাই করোনা পরীক্ষার নমুনা দেওয়া হয়। গত রাতে ঢাকার ল্যাব থেকে পাঠানো রিপোর্টে জেলা প্রশাসক মোঃ শাহরিয়াজ, সিভিল সার্জন ডা. কাজী মিজানুর রহমান, নাটোর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল হাসনাত, তার স্ত্রী, দুই সন্তানসহ মোট ৩০ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। এনিয়ে জেলায় মোট ৪৩৫ জন করোনায় আক্রান্ত হলেন বলেও জানান তিনি।

জানা গেছে, আক্রান্তদের মধ্যে নাটোর সদর উপজেলায় করোনা আক্রান্তরা হলেন, নাটোরের জেলা প্রশাসক মোঃ শাহরিয়াজ, সিভিল সার্জন ডাঃ কাজী মিজানুর রহমান, নাটোর সদর হাসপাতালের করোনা কনসালটেন্ট চিকিৎসক ডাঃ এএইচএম আনিসুজ্জামান, নাটোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল হাসনাত, পুলিশের এসআই আক্কাস আলী, করোটা গ্রামের গিয়াস উদ্দিন, জেলা হিসাব রক্ষণ অফিসের স্টাফ শরিফুল ইসলাম, আলাইপুর এলাকার আকতার, পুলিশের বিশেষ শাখার নজরুল ইসলাম, নাটোরের ভ্যাটেনারী সার্জন রকিবুল হাসান সুজন, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের কর্মকর্তা জান্নাতুল পারভীন, কান্দিভিটিার নাজমা খাতুন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল হাসনাতের স্ত্রী রাশেদা খাতুন ও তাদের ছেলে-মেয়ে ও বোন, আলাইপুর এলাকার সাংবাদিক নবীউর রহমান পিপলুর ভাই নাইমুর রহমান রনি, কাপুড়িয়া পট্টির বিকাশ চন্দ্র, লক্ষীপুর খোলাবাড়িয়া গ্রামের মোজাহারুল ইসলাম ও আব্বাস আলী।

গুরুদাসপুরে পল্লী বিদ্যুতের কর্মচারী মোতাহার হোসেন, স্বাস্থ্যকর্মী আল আমিন, ইউসুফ আলী, ওমর আলী, বেড়গঙ্গারামপুরের রব্বেল, বৃন্দাপুর গ্রামের অমল কুমার, ধারাবারিষা গ্রামের আম্বিয়া ও কাওছার আলী।

বড়াইগ্রামে ৯ জন করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন। তারা হলেন, বনপাড়া আমিনা হাসপাতালের মহিউদ্দিন, আমিরুল আলম ও আব্দুল হালিম। দাসগ্রামের ব্যবসায়ী আব্দুল লতিফ, আহমেদপুরের চাকুরীজীবী শেফালী খাতুন, লক্ষীকোলের মাজহারুল ইসলাম, মহিষভাঙ্গা মহল্লার আজমা খাতুন, বড়াইগ্রাম উপজেলা চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারীর মেয়ে শিক্ষার্থী নাফিজা পাটোয়ারী ও বনপাড়ার চাকুরীজীবী রওশন আরা রয়েছেন।