নিউজ ডেস্ক: রোববার (২১ জুন) থেকে নাটোর জেলার ৭টি উপজেলায় একযোগে মাস্ক পড়া বাধ্য করতে অভিযান শুরু হবে। একই সাথে চায়ের দোকানে টিভি দেখার আড্ডা বন্ধ করতে পুলিশের অভিযান চলবে। পাশাপাশি দরিদ্র মানুষদের মাঝে ২ লাখ মাস্ক বিরতন করবেন পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা।

সম্প্রতি একটি বেসরকারি টিভির সঙ্গে সাক্ষাৎকারে বিষয়টি নিশ্চিত করেন নাটোর জেলার পুলিশ সুপার (এসপি) লিটন কুমার সাহা। তিনি জানান, রোববার সকাল থেকে ৭টি থানায় একযোগে জনসাধারণকে মাস্ক ব্যবহার করার জন্য পুলিশের অভিযান শুরু হবে। প্রতিটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, শিল্প কারখানা, যানবহনে চলাচলকারী ও সেবা প্রদানকারীদের মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করা হবে।

তিনি আরো বলেন, ২০ লাখ মানুষের বসবাসের নাটোরে সম্প্রতি সময়ে করোনা শনাক্তের হার বাড়ছে। জেলায় ২শ’ জন আক্রান্ত হলেই রেড জোন হবে। তার আগেই করোনা নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। এর জন্য মাস্কের বিকল্প নেই। তাই সকলকে মাস্ক পড়তে উৎসাহিত করবে জেলা পুলিশ। জেলার ২০ লাখ মানুষকে কোনোভাবেই করোনার ঝুঁকিতে আমরা ফেলতে পারি না। তাই প্রশাসনের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অপরদিকে গ্রামের চা স্টল গুলোতে গণজমায়েত বন্ধ করতে সেখানে টিভির প্রদর্শন বন্ধ করা হবে জানান নাটোরের পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা। তিনি বলেন, রোববার (২১ জুন) থেকে কোন চা স্টলে টিভি প্রদর্শন হলে টিভি জব্দ করা হবে। এছাড়া যাতে কেউ মাস্ক ছাড়া বাড়ির বাইরে না আসেন, এ জন্য দরিদ্র মানুষের মধ্যে ২ লাখ মাস্ক বিতরণ করা হবে।

প্রসঙ্গত, গত শনিবার পর্যন্ত নাটোরে আরো ১১ জন করোনা আক্রান্ত রোগীসহ মোট আক্রান্তর সংখ্যা হলো ১২৭ জন। নাটোরের সিভিল সার্জন ডাঃ কাজী মিজানুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এছাড়া একজন শনাক্তের আগেই মারা গেছেন।