নিউজ ডেস্ক: নাটোরে আক্রান্তের সকল রেকর্ড ভঙ্গ করে আরো ৬৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে ফলোআপ (আগেই করোনা আক্রান্ত ছিলেন পরে আবার নমুনা পরীক্ষায়ও পজিটিভ) রয়েছেন ৭জন। এ নিয়ে জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৭২৫ জনে দাঁড়ালো। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিভিল সার্জন ডা. কাজী মিজানুর রহমান।

নতুন আক্রান্ত ৫৭ জনের মধ্যে নাটোর সদর উপজেলায় ২৯ জন, সিংড়া উপজেলায় ৪জন, বড়াইগ্রাম উপজেলায় ৩জন, বাগাতিপাড়া উপজেলায় ৪জন, লালপুর উপজেলায় ৪জন, গুরুদাসপুর উপজেলায় ১৩জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

সোমবার (১৭ আগস্ট) রাত দশটার দিকে এই দুঃসংবাদ নাটোরে পৌঁছেছে। এর আগে করোনা পরীক্ষার জন্য ঢাকায় এক সাথে ৩৫৬টি নমুনা পাঠানো হয়েছিল। এবারের আক্রান্তের তালিকায় নাটোরের ৭টি উপজেলাই রয়েছে। বরাবরের মত তালিকার শীর্ষস্থানে রয়েছে সদর উপজেলা। এখানে আক্রান্ত ৩২ জন। যার মধ্যে পূর্বের আক্রান্ত রয়েছেন ৪ জন।

নতুন করে করোনা আক্রান্তদের মধ্যে রয়েছেন নাটোর শহরেরর কাপুড়িয়া পট্টি এলাকার সাধনা বসাক, আল আরাফা ব্যাংক নাটোর সদরে কর্মরত খাইরুল আজাদ (৩৪), চকরামপুর এলাকার শামসুল ইসলাম (৬৬), শহীদুল্লাহ, হাজরা নাটোর এলাকার সাইফুল ইসরাম, ডিসি অফিসের স্টাফ ফরিদুল ইসলাম, নলডাঙ্গা থানার নসরতপুর গ্রামের আবুল কাশেম (৫৬)।

সিংড়ার পোস্টম্যান আলমগীর হোসেন, বড়সাঔল গ্রামের কমিউনিটি ক্লিনিকের আজিজুল ইসলাম, আতাউর রহমান (৩৫), জোর মল্লিাকার নজরুল ইসলাম, সাতপুকুরিয়া গ্রামের জাহিদুল ইসলাম।

বাগাতিপাড়া উপজেলার ভাটপাড়া গ্রামের আব্দুল্লাহ, গালিমপুর এলাকার মেহেদী হাসান (২৪), উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত ইউনুস ফারুক (৫৫), উপজেলা নির্বাচন অফিসে কর্মরত শফিকুল ইসলাম।

লালপুরের বোয়ালিয়া গ্রামের ইকবাল হোসেন (২৫), গোপালপুর বাজারের আমিনুল ইসলাম (৫৮), লালপুর উপজেলার বাইরা গ্রামের আনোয়ার হোসেন (২৫), মিনারুল ইসলাম (২৬) বিরুপাড়া এলাকার তরুণ কুমার দাশ (৩৯), গোপালপুর পৌরসভার স্টাফ মিজানুর রহমান, ওয়ালিয়া হাইস্কুলের শিক্ষক রফিকুজ্জামান।

গুরুদাসপুরর কাচারীপাড়া এলাকার আরিফ মাহাবুব অরকো, একই এলাকার শারিনা হাসান, হাবিবা হাসান, তাকওয়া বেগম, চাচকৈর বাজারের ব্যবসায়ী বিয়াঘাট গ্রামের এমদাদুল হক, খামারনাচকৈড় এলাকার জান্নাতুল ইসলাম জুই, মনোয়ারা বেগম, আব্দুল গফুর।

বড়াইগ্রাম উপজেলার পাঁচবাড়িয়া গ্রামের জয়নাল আবেদীন, জালোড়া গ্রামের গ্রাম্য চিকিৎসক শাজাহান (৫০) আলী, ইকরি গ্রামের ব্যবসায়ী সাখাওয়াত হোসেন।