নিউজ ডেস্ক: নাটোরে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে পর্যটকদের ব্যাগে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টাকালে শাহিন (৪০) নামে এক ক্যাডারকে আটক করে নাটোর সদর থানায় সোপর্দ করেছে ভুক্তভোগীরা। তারা একটি অভিযোগও দায়ের করেছেন।

শুক্রবার (১৭ জুলাই) বেলা এগারোটার দিকে নাটোর শহরের দিঘাপতিয়া উত্তরা গণভবনের সামনে এই ঘটনা ঘটে। আটক শাহিন শহরের ফুলবাগান এলাকার মৃত গোলাম হোসেনের ছেলে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, রাজশাহীর ভাটাপাড়া যুবসংঘের ১৪ জন সদস্য ৭টি মোটরসাইকেল নিয়ে নাটোরের পাটুল এলাকায় হালতিবিলে বোড়ানোর উদ্দেশে আসে। পথে দিঘাপতিয়া গণভবন এলাকা ছাড়ার সময় একটি মোটর সাইকেল তাদের পিছু নেয়। এ সময় শাহীন ওই মোটরসাইকেল আরোহীদের থামিয়ে জোর করে তার ব্যাগ তল্লাশির চেষ্টা করে। তারপর সে একজনের ব্যাগে ইয়াবা ঢুকানোর চেষ্টা করলে ওই মোটরসাইকেলে থাকা অপর যুবক ফোনে তাদের সহযাত্রীদের ডাকে। পরে তারা এসে ঘটনাটি ফেসবুক পেজে সরাসরি লাইভ করলে মুহূর্তেই ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে যায়। পরে পর্যটকদের ওই টিম শাহীনের পরিচয় জানার জন্য চাপ দিলে সে সঠিক উত্তর দিতে না পারায় তাকে ধরে সদর থানায় সোপর্দ করে।

স্থানীয়রা জানান, শাহীনের এমন অত্যাচারে অতিষ্ট সাধারণ মানুষ। সরকার দলীয় এক বড় নেতার ছত্রছায়ায় উঠাবসা করে বিধায় কেউ মুখ খুলতে সাহস পায় না। সে নিয়মিত পর্যটকদের সাথে এমন কাজ করে টাকা হাতিয়ে নেন। পুলিশী ঝামেলা এড়াতে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায় না বলেও জানান তারা।

ভুক্তভোগী দলের প্রধান ইমতিয়াজ জামিল দীপন জানান, শুক্রবার বেলা ১১ টার দিকে সাতটি মোটরসাইকেল যোগে তিনিসহ ১৪ জনের একটি স্বেচ্ছাসেবী দল নাটোর জেলার নলডাঙ্গা উপজেলার পাটুল মিনি কক্সবাজার এলাকায় ভ্রমণ এবং করোনাভাইরাস সম্পর্কে সচেতন করার উদ্দেশ্যে মাস্ক বিতরণ কার্যক্রমের জন্য যাচ্ছিলেন। পথে উত্তরা গণভবনের সামনে পৌঁছালে এক যুবক মোটরসাইকেল যোগে এসে তাদের গতিরোধ করে। এ সময় শাহীন ডিবি পুলিশ পরিচয়ে তাদের পরিচয়ে তাদের ব্যাগ তল্লাশি করা শুরু করলে। এ সময় পর্যটকরা তার পরিচয়পত্র দেখতে চান। শাহীন তার পরিচয় পত্র না দেখিয়ে জোর জবরদস্তি শুরু করলে সন্দেহের সৃষ্টি হয়। তখন স্বেচ্ছাসেবকরা মিলে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। পরে তার বিরুদ্ধে মাদক দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টার অভিযোগ আনা হয়।

তিনি আরো জানান, পর্যটকরা যদি এইভাবে হয়রানির শিকার হয় তাহলে তো নাটোরে কেউ আসবে না। আমরা এর সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।

নাটোর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম জানান, আমরা একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। অভিযুক্ত শাহীন আমাদের হেফাজতে রয়েছে। বিষয়টি তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এছাড়া মামলা রুজুর পর নাটোর থানা পুলিশ, ডিএসবি এবং ডিবি কর্তৃক এ ঘটনার সাথে জড়িত প্রতারক মোঃ শাহাদৎ হোসেন (৩০) ও মোঃ রুবেল পাটোয়ারী (৩২)কে গ্রেফতার করেছে।

নাটোরের পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা জানান, এ ঘটনায় ভাটাপাড়া যুব সংঘের সাধারণ সম্পাদক ইমতিয়াজ জামিল দিপন বাদী হয়ে শাহীনকে মূল অভিযুক্ত করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। শাহীন আলমকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, শাহিন সংঘবদ্ধ প্রতারকচক্রের সদস্য। এই চক্রের অন্য সদস্যদের ধরতে অভিযান শুরু করেছে পুলিশ।