নিজস্ব প্রতিবেদক: কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্স পরীক্ষার খাতা জালিয়াতির অভিযোগে এই চক্রের মাহমুদুন নবী মিলন নামে এক সক্রিয় সদস্যকে আটক করেছে নাটোর জেলা প্রশাসন।

বুধবার (৯ জানুয়ারী) শহরের বলারীপাড়া এলাকার বাসায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। এসময় কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্স পরীক্ষার ৩৭১টি খাতা উদ্ধার করা হয়।

সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেসমিন আক্তার বানু জানান, তারা জানতে পারেন কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্স পরীক্ষার খাতা পরিবর্তন করে বোর্ডে জমা দেওয়া হয়। পরীক্ষা শেষে খাতাগুলি ওই চক্র তাদের আস্তানায় নিয়ে পুর্বে থেকে সঠিক উত্তর লেখা অন্য খাতা বোর্ডে জমা দেওয়া হয়। মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে শিক্ষার্থীদের পাশ করাতেই দীর্ঘদিন থেকে এই চক্রটি কাজ করে আসছে।

তিনি আরো বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার সকালে একজন ম্যজিষ্ট্রেটের শহরের বলারীপাড়া এলাকায় বেসরকারী কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক মাহমুদুন নবী মিলনের বাড়ীতে অভিযান চালানো হয়। এসময় তার বাসা থেকে ৩৭১টি খাতা জব্দ এবং শিক্ষক মাহমুদুন নবী মিলনকে আটক করা হয়।

এর আগে শিক্ষক মিলনের দেয়া তথ্যমতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নাটোর সরকারী টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ কেন্দ্রের ১১জন পরিক্ষার্থীকে আটক করা হয়। এসময় জিজ্ঞাসাবাদ শেষে শিক্ষার্থীদের ছেড়ে দেওয়া হয়।

এছাড়া নাটোর কারিগরি স্কুল এন্ড কলেজের (ভকেশনাল) অধ্যক্ষ মোল্লা কলিম উদ্দিকেও জিজ্ঞাসাবাদ করে ছেড়ে দেওয়া হয়। এব্যাপারে নিয়মিত মামলা করার জন্য পুলিশকে বলা হয়েছে। ঘটনার সাথে যেই জড়িত তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে।

নাটোরের অতিরিক্ত পুরিশ সুপার সদর সার্কেল আবুল হাসানাত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, তাদের জিজ্ঞাসাবাদে শিক্ষক মিলন জড়িত থাকার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেছে। তদন্ত শেষে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।