নিউজ ডেস্ক: নাটোর শহরে করোনা উপসর্গ নিয়ে ছবি রানী রায় নামে ৭৫ বছর বয়সী এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। তবে মারা যাওয়ার পর কেউ সৎকারে এগিয়ে না আসায় রাজশাহী থেকে স্বেচ্ছাসেবক এনে শহরতলীর হরিশপুর মহাসশ্মানে তার সৎকার করেছে নাটোর সদর উপজেলা প্রশাসন। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জাহাঙ্গীর আলম।

বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) বিকেল ৫টার দিকে শহরের কাপুড়িয়াপট্রি এলাকায় নিজ বাড়িতে মারা যান তিনি। ছবি রানী মৃত নাড়ু গোপাল রায়ের স্ত্রী। এর আগে ছবি রানীর ছেলে, ছেলে বৌ ও এক নাতি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি বাড়ির আক্রান্ত সদস্যের সঙ্গে একত্রে বসবাস করছিলেন। তার মৃত্যুর পর কেউ সৎকারে এগিয়ে না আসায় সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম তার সৎকারের ব্যবস্থা করেছেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম (ইউএনও) জানান, ছবি রানী রায় ডায়াবেটিস ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। আজ (বৃহস্পতিবার) বিকেলে হার্ট এ্যাটাকে তার মৃত্যু হয়েছে। তবে গত রোববার ছবি রানীর নমুনা পাঠানো হয়েছে রামেক ভাইরোলজি ল্যাবে। নমুনার ফলাফল আসার আগেই তিনি মারা যান। মৃত্যুর পর আবারও নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, ধারণা করা হচ্ছে ছবি রানী রায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। তার ছেলেসহ ওই পরিবারের ৩ সদস্য করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর বাড়িতেই হোম আইসোলেশনে রয়েছেন। তিনি তাদের সাথে একত্রে হোম কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন। বাড়িটি লকডাউনে রয়েছে বলেও জানান তিনি।