নিউজ ডেস্ক: কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে নামাজ পড়া অবস্থায় খাইরুন্নেছা (৫৫) নামের এক বৃদ্ধা মাকে কুড়াল দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করেছে ছেলে।

রোববার (১১ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলার শুভপুর ইউনিয়নের পাশাকোট গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত খাইরুন্নেছা পাশাকোট গ্রামের মৃত আনোয়ার উল্লাহর স্ত্রী।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিহত খাইরুন্নেছা (৫৫) দুপুর দেড়টার দিক জোহরের নামাজ আদায় করছিলেন। এসময় মানসিক ভারসাম্যহীন ঘাতক ছেলে আবু বকর (৩৭) পিছন দিক থেকে এসে কুড়াল দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে খাইরুন্নেছাকে। পরে বাড়ির লোকজন চিৎকার করলে আশেপাশের লোকজন এসে আবু বকরকে আটক করে পুলিশকে খবর দেয়। ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে এবং ঘাতক আবু বকরকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

তাৎক্ষণিক হত্যার কারণ সম্পর্ক কিছুই জানাতে পারেনি পুলিশ। তবে ঘাতক আবু বকর বিডিআর বিদ্রোহ মামলায় জেল থেকে অব্যাহতি পাওয়ার পর থেকে মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে নিজ বাড়িতেই অবস্থান করতো বলে জানা গেছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শুভরঞ্জন চাকমা জানান, ঘাতক ছেলেকে পুলিশি হেফাজতে নেয়া হয়েছে। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।