ছবি: প্রতীকী

নিউজ ডেস্ক: কুষ্টিয়ায় লম্পট শ্বশুরের বিরুদ্ধে পুত্রবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করেছেন এক পুত্রবধূ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান তালুকদার।

মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) দুপুরে কুষ্টিয়া মডেল থানায় লম্পট শ্বশুরকে আসামি মামলাটি করেন ভুক্তভোগী পুত্রবধূ। অভিযুক্ত লম্পট শ্বশুর কুষ্টিয়া শহরতলির হাউজিং বি ব্লক এলাকার বাসিন্দা।

মামলার এজাহার সূত্র জানা যায়, লম্পট শ্বশুর গত সপ্তাহে প্রথমবার ওই গৃহবধূকে ধর্ষণ করে। তখন বিষয়টি পারিবারিকভাবে ভুক্তভোগী গৃহবধূ তার স্বামী এবং শাশুড়িকে জানান। কিন্তু তারা বিভিন্ন টালবাহানার মাধ্যমে বিষয়টি অস্বীকার করেন। এরপর গত রোববার (১১ই অক্টোবর) সকালে ভুক্তভোগী গৃহবধূকে দ্বিতীয়বারের মতো ধর্ষণ করেন তার শ্বশুর। পরে গৃহবধূ বিষয়টি তার মাকে জানান।

ভুুক্তভোগী গৃহবধূর মা জানান, ২০১৯ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি তার মেয়ে বিয়ে হয়। বিয়ের কিছুদিন পর মেয়ের শ্বশুর বাড়ির পরিবার ২ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে। যৌতুক দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে মেয়েকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। পারিবারিকভাবে দেন-দরবার করে ২০/২২ দিন আগে মেয়েকে পুনরায় তার শ্বশুর বাড়িতে পাঠানো হয়। মেয়ের ননদের সন্তান হওয়ায় পরিবারের সদস্যরা শহরের হাসপাতাল মোড়ে ওই ননদের বাড়িতে থাকেন। মাঝে মাঝে শ্বশুর হাউজিংয়ের বাড়িতে আসেন। ছেলে অধিকাংশ সময় বাড়ির বাইরে থাকার সময় প্রায় সময়ই মেয়ে বাড়িতে একা থাকেন। সেই সুযোগে মেয়ের লম্পট শ্বশুর আমার মেয়েকে দুই দফায় ধর্ষণ করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কুষ্টিয়া মডেল থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। মামলার এজাহারে আসামি একজন। তাকে গ্রেফতার করতে অভিযান চালছে বলেও জানান তিনি।