নিউজ ডেস্ক: অবৈধ বালুমহালে অভিযান চালানোর সময় বগুড়ার শেরপুর উপজেলার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) লিয়াকত আলী শেখের গাড়িতে হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় দুইজন আহত হয়েছেন। হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন খোদ শেরপুর উপজেলা ইউএনও।

শনিবার (৩ অক্টোবর) সন্ধ্যায় উপজেলার খানপুর ইউনিয়নের বড়ইতলী নলডাঙ্গী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহত দু’জন হলেন-উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কার্যালয়ের অফিস সহকারী উজ্জল মোহন্ত ও নৈশ্যপ্রহরী মনজুরুল হক রনজু। তাদের স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

শেরপুর উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, সন্ধ্যায় উপজেলার খামারকান্দি ইউনিয়নের নলডাঙ্গী গ্রামে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে, এমন খবর পেয়ে ইউএনও লিয়াকত ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান। এ সময় সেখানে পাইপ, মেশিন দেখে তা সরানোর নির্দেশ দেন তিনি। তবে সেখানে বালু উত্তোলন কাজে কাউকে পাওয়া যায়নি। পরে ইউএনও’র নির্দেশে পাইপ ও যন্ত্রপাতি সরাতে থাকেন উপজেলা প্রশাসনের লোকজন। এমন সময় কয়েকজন দুর্বৃত্ত ঘটনাস্থলে এসে তাদের কাজে বাধা দেয়।

এর একপর্যায়ে তারা বাঁশ ও লাঠি দিয়ে উপজেলা প্রশাসনের গাড়িতে হামলা চালিয়ে গাড়ির জানালার গ্লাস ভাঙচুর করে। হামলার একপর্যায়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কার্যালয়ের অফিস সহকারী উজ্জ্বল মোহন্ত ও নৈশ্যপ্রহরী মুঞ্জুরুল হক আহত হন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে তাদের উদ্ধার করে। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় জড়িত প্রকৃত কোনো অপরাধীকে ছাড় দেওয়া হবে না মন্তব্য করে শেরপুর থানার পরিদর্শক (ওসি-তদন্ত) এস এম আবুল কালাম আজাদ জানান, খবর পেয়েই অতিরিক্ত পুলিশ নিয়ে তিনি ঘটনাস্থলে পৌঁছে ইউএনও লিয়াকতসহ ওই অভিযানের সব সদস্যদের উদ্ধার করা হয়েছে। পাশাপাশি এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ছয়জনকে আটক করা হয়েছে। তাদের ব্যাপারে খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে। এছাড়া অভিযান চলমান রয়েছে বলেও জানান তিনি।