নিউজ ডেস্ক: বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলায় পুত্রবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে মিলন মিয়া নামে এক শ্বশুরকে (৫৫) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শিবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম বদিউজ্জামান।

সোমবার (৫ অক্টোবর) দুপুরে আদালতের মাধ্যমে মিলন মিয়াকে বগুড়া জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এর আগে রোববার রাত ১০টায় থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করে। তিনি উপজেলার বিহার ইউনিয়নের বিহার উত্তরপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।

মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ধর্ষক শশুর মিলন মিয়ার ছেলে সাব্বির হোসেনের সঙ্গে পাশের গ্রামের এক মেয়ের তিন বছর আগে বিয়ে হয়। বিয়ের পর স্বামী ট্রাকের হেলপার হিসেবে কাজ করায় গৃহবধূর স্বামী ২০ থেকে ২১ দিন পর পর বাড়িতে আসেন। এই সুযোগে পুত্রবধূর দিকে শ্বশুর মিলন মিয়ার কু-দৃষ্টি পড়ে। এর মধ্যে শ্বশুর মিলন পুত্রবধূর গায়ে মাঝে মাঝে হাত দিত। এক পর্যায়ে গত ২৬ জুলাই গৃহবধূ শয়ন কক্ষে ঘুমিয়ে গেলে গভীর রাতে শ্বশুর মিলন মিয়া পুত্রবধূর শয়ন কক্ষে প্রবেশ করে পুত্রবধূকে ধর্ষণ করেন।

এ সময় কৌশলে ধর্ষণের ঘটনা মুঠোফোনে ভিডিও ধারণ করেন পুত্রবধূ। পরে বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়ভাবে সমঝোতার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন শ্বশুর। এরপর রোববার সন্ধ্যায় গৃহবধূ বাদী হয়ে শ্বশুর মিলন মিয়ার বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন। পুলিশ রাতেই তাকে গ্রেফতার করে। পরে ভিডিও চিত্রটি থানা পুলিশের কাছে জমা দেন ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে শিবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম বদিউজ্জামান বলেন, সোমবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে মিলন মিয়াকে বগুড়া জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।