বগুড়া-১ (সারিয়াকান্দি-সোনাতলা) আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সাহাদারা মান্নান শিল্পী ও যশোর-৬ আসনে শাহীন চাকলাদার বিপুল ভোটের ব্যবধানে নৌকা প্রতীক নিয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।

নিউজ ডেস্ক: বগুড়া-১ (সারিয়াকান্দি-সোনাতলা) আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সাহাদারা মান্নান শিল্পী ও যশোর-৬ আসনে শাহীন চাকলাদার বিপুল ভোটের ব্যবধানে নৌকা প্রতীক নিয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।

বগুড়া-১ (সারিয়াকান্দি-সোনাতলা) আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সাহাদারা মান্নান শিল্পী পেয়েছেন এক লাখ ৪৫ হাজার ২৯৫ ভোট। তার নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী (ট্রাক) ইয়াসির রহমতুল্লাহ ইন্তাজ পেয়েছেন ১ হাজার ৫৬৩ ভোট।

অন্যদিকে যশোর-৬ আসনে শাহীন চাকলাদার এক লাখ ২৪ হাজার ৩ ভোট পেয়েছেন। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীকধারী হাবিবুর রহমান পেয়েছেন এক হাজার ৬৭৮ ভোট।

মঙ্গলবার রাত ১০টায় রিটার্নিং অফিসার সিনিয়র বগুড়া জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মাহবুব আলম শাহ ও কেশবপুর উপজেলা নির্বাচন অফিসার বজলুর রশিদ এই ফলাফল ঘোষণা করেন।

বগুড়া-১ (সারিয়াকান্দি-সোনাতলা) আসনে অন্য প্রার্থী জাতীয় পার্টির মোকছেদুল আলম (লাঙ্গল) পেয়েছেন, এক হাজার ২৫১ ভোট, ভোট বর্জনকারী ধানের শীষের একেএম আহসানুল তৈয়ব জাকির (ধানের শীষ) পেয়েছেন, ৬৬৪ ভোট, বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের প্রার্থী নজরুল ইসলাম (বটগাছ) পেয়েছেন ৪৭৪ ভোট এবং বাংলাদেশ প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দলের প্রার্থী মো. রনি (বাঘ) পেয়েছেন, ১৮৪ ভোট।

বগুড়া জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার মাহবুব আলম শাহ জানান, বগুড়া-১ আসনে মোট ভোটার তিন লাখ ৩০ হাজার ৯১৮ জন। সারিয়াকান্দি উপজেলার একটি পৌরসভা ও ১২টি ইউনিয়নে ভোটার সংখ্যা এক লাখ ৭৭ হাজার ৩৫২ জন এবং সোনাতলা উপজেলার একটি পৌরসভা ও সাতটি ইউনিয়নে ভোটার সংখ্যা এক লাখ ৫৩ হাজার ৫৬৬ জন। মোট বৈধ ভোট পড়েছে, এক লাখ ৪৯ হাজার ৪৩১ ভোট। বাতিল হয়েছে, এক হাজার ৩১৫ ভোট। ভোট গ্রহণের হার ৪৫.৫৭ শতাংশ।

অন্যদিকে কেশবপুর উপজেলা নির্বাচন অফিসার বজলুর রশিদ জানান, নির্বাচনে শাহীন চাকলাদার এক লাখ ২৪ হাজার ৩ ভোট পেয়েছেন। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীকধারী হাবিবুর রহমান পেয়েছেন এক হাজার ৬৭৮ ভোট। নির্বাচন থেকে গেলো সপ্তাহে সরে দাঁড়ানো বিএনপির প্রার্থী আবুল হোসেন আজাদের ধানের শীষ প্রতীকে পড়েছে দুই হাজার ১২ ভোট। তবে এই সংখ্যা কিছুটা পরিবর্তন হতে পারে বলে জানিয়ে নির্বাচন অফিসার বজলুর রশিদ বলেন, এখন ক্রসচেক করা হচ্ছে। কেশবপুরে মোট ভোটার দুই লাখ তিন হাজার ১৮ জন। এবার মোট ভোট কেন্দ্র ছিল ৭৯টি।