ছবি: প্রতীকী

নিউজ ডেস্ক: নাটোরের বাগাতিপাড়ায় গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে মুক্তার হোসেন (৪৮) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাগাতিপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাজমুল হক।

রোববার (২২ নভেম্বর) সকালে আটককৃতকে নাটোর জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়া ভুক্তভোগী নারীকে নাটোর আধুনিক হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। এর আগে শনিবার বাগাতিপাড়া থানায় মামলা দায়ের করেন ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ। অভিযুক্ত মুক্তার হোসেন উপজেলার দয়ারামপুর ইউনিয়নের চন্দ্রখইর গ্রামের মুন্নাফ প্রামানিকের ছেলে।

পুলিশ সুত্রে জানা যায়, নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলার দয়ারামপুর ইউনিয়নের চন্দ্রখইর গ্রামের মুন্নাফ প্রামানিকের ছেলে মুক্তার হোসেন মাঝে মধ্যে প্রতিবেশী গৃহবধূর বাড়িতে যাতায়াত করতো। গত ১৮ নভেম্বর সকালের দিকে গৃহবধূর স্বামী রাজমিস্ত্রীর কাজে চলে যায়। ওই দিন সকাল ১১ টার দিকে গৃহবধূ বাড়িতে রান্না করছিলেন।

এ সময় গৃহবধূকে একা পেয়ে মুক্তার হোসেন তার সাথে কথা বলার এক পর্যায়ে ভাত খাওয়ার ইচ্ছে পোষণ করে। এর পর এক গ্লাস পানি চাইলে ওই গৃহবধূ পানি আনতে ঘরে প্রবেশ করেন। ওই সময়ে মুক্তার গৃহবধূর ঘরে প্রবেশ করে তাকে পেছন থেকে ঝাপটিয়ে ধরে এবং ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে গৃহবধূর ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণ কররতে থাকেন।

এ সময় গৃহবধূর স্বামী ঘরে প্রবেশ করে স্ত্রীকে ধর্ষিত হতে দেখে চিৎকার করে প্রতিবেশীদের ডাকতে থাকেন। এই সুযোগে মুক্তার পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ শনিবার বিকেলে থানায় উপস্থিত হয়ে মুক্তারকে আসামি করে ধর্ষণ মামলা দায়ের করলে পুলিশ তাকে আটক করে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বাগাতিপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাজমুল হক জানান, রোববার সকালে আটককৃতকে নাটোর জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়া ভিকটিমকে নাটোর আধুনিক হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে।