বিএনপি নেতা মেজর হাফিজ ও খোকন আটক (পুরনো ছবি)

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অবঃ) হাফিজ উদ্দিন আহমদ ও যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ-ডাকসুর সাবেক জিএস খায়রুল কবির খোকনকে আটক করেছে পুলিশ। খোকনকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে জানিয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) রমনা বিভাগের সহকারী কমিশনার (এসি) এসএম শামীম গণমাধ্যমকে বলেন, খোকনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা রয়েছে। এ কারণে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৮ নভেম্বর) সুপ্রিমকোর্টের ফটক থেকে তাদের আটক করেছে পুলিশ। এর মধ্য বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অবঃ) হাফিজ উদ্দিন আহমদকে দুপুর দেড়টার দিকে হাইকোর্ট এলাকা থেকে গোয়েন্দা পুলিশ আটক করেছে বলে জানিয়েছেন হাইকোর্টের বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা। পুলিশের রমনা বিভাগের ভারপ্রাপ্ত উপকমিশনার রাজীব আল মাসুদ বলেন, ‘আজ দুপুরের দিকে হাইকোর্টের গেটের সামনে থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এখন তিনি ডিবির হেফাজতে। এরপর তাঁকে আদালতে পাঠিয়ে ১০ দিনের রিমান্ড চাওয়া হবে।’ পুলিশ জানায়, গত মঙ্গলবার হাইকোর্টের সামনে বিক্ষোভ ও গাড়ি ভাঙচুরের মামলায় তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর আগে খায়রুল কবির খোকনকে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে আটক করা হয়। আটকের পর তাকে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চত করেছেন শাহবাগ থানার ওসি আবুল হাসান।

শাহবাগ থানার ওসি আবুল হাসান বলেন, খায়রুল কবির খোকনকে হাইকোর্টের সামনে থেকে আটকের পর শাহবাগ থানায় নিয়ে আসা হয়। পরে তাকে ডিবি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। মঙ্গলবার হাইকোর্টের সামনে পুলিশের ওপর হামলা ও গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনায় বিএনপির ৫০০ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে একটি মামলা হয়েছে। মামলাটি ইতি মধ্যে ডিবি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

খোকনের স্ত্রী বিএনপির স্বনির্ভরবিষয়ক সম্পাদক শিরীন সুলতানা জানান, জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানি উপলক্ষে আজ সকালে আদালতে যাচ্ছিলেন খায়রুল কবির খোকন। এসময় সুপ্রিমকোর্টের ফটক থেকে তাকে আটক করে নিয়ে যায় পুলিশ। তাকে কেন আটক করা হয়েছে, আমার কিছু জানা নেই।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত গাড়ি ভাঙচুর ও পুলিশের কাজে বাধা দেওয়ার মামলায় গ্রেপ্তার বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজ উদ্দিন আহমেদসহ দলটির তিন নেতা জামিনে মুক্তি পেয়েছেন। ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবু সাঈদ বৃহস্পতিবার বিকেলে তাদের জামিন মঞ্জুর করেন। জামিন পাওয়া অন্য দুজন বিএনপি নেতা হলেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন ও হকার্স দলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মকবুল হোসেন।