নিউজ ডেস্ক: নাটোরের বড়াইগ্রামে নবাগত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন মোঃ জাহাঙ্গীর আলম। তিনি উপজেলা নির্বাহী অফিসার আনোয়ার পারভেজের স্থলাভিষিক্ত হলেন।

সোমবার (৩১ আগস্ট) ১০ টায় তিনি বড়াইগ্রামের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে যোগদান করেন। বড়াইগ্রাম উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোছাঃ মোহাইমিনা শারমিন নবাগত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোঃ জাহাঙ্গীর আলমকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়েে বরণ করে নেন।

এর আগে মোঃ জাহাঙ্গীর আলম সিরাজগঞ্জ জেলার কামারখন্দ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তিনি বিসিএস ৩১ তম ব্যাচের কর্মকর্তা। অন্যদিকে গত ২৩ আগস্ট বড়াইগ্রামের সাবেক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আনোয়ার পারভেজ বদলী হয়ে যান।

প্রসঙ্গত, কামারখন্দ উপজেলায় সরকারি কোনো প্রকল্পের অনিয়ম বা দুর্নীতি খুঁজতে গেলে গণমাধ্যমকর্মীদের ইউএনও জাহাঙ্গীর আলমের পূর্বানুমতি নিতে হবে’ বলে কামারখন্দ প্রেস ক্লাবে দেওয়া ইউএনও’র একটি বক্তব্যের ভিডিও ভাইরাল হয়। এ নিয়ে তিনি খুব সমালোচিত হন।

গত বছর ভূমি মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনে এবং ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদফতরের প্রায় ৩৫ লাখ টাকা অর্থায়নে কামারখন্দের বলরামপুর ও চৌবাড়িতে ‘হুড়াসাগর নদী’ ভরাট করে ‘আশ্রয়ণ প্রকল্প’ নির্মাণকালীন সংবাদ সংগ্রহকালে এই নিষেধাজ্ঞা দেন। সিরাজগঞ্জের কামারখন্দের উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. জাহাঙ্গীর আলম এ প্রকল্পের দায়িত্বে ছিলেন। প্রকল্পটি বাস্তবায়নের কাজে তাকে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে সহযোগিতা কছেছেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) এসিল্যান্ড শিফা নুসরাত।