নিউজ ডেস্ক: নাটোরের বড়াইগ্রামে বিষ দিয়ে কমপক্ষে ১৫ লাখ টাকার মাছ মেরে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় তিনি পুকুর মালিক কুজাইল গ্রামের গিয়াসউদ্দিনকে অভিযুক্ত করে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

রোববার (২২ নভেম্বর) দুপুরে এ অভিযোগ দায়ের করেন ক্ষতিগ্রস্থ মৎস্যচাষী ফিরোজ আহমেদ। এর আগে শনিবার ভোর রাতের দিকে কে বা কারা তার পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে। ফিরোজ উপজেলার মেরিগাছা গ্রামের খলিলুর রহমান মৃধার ছেলে।

জানা যায়, চার বছর যাবৎ ফিরোজ কুজাইল এলাকার কৈড়াল বিলে পৌনে পাঁচ বিঘার একটি পুকুর লিজ নিয়ে মাছ চাষ করে আসছেন। শনিবার ভোর রাতের দিকে কে বা কারা তার পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে। সকালে তিনি পুকুরে মরা মাছ ভাসতে দেখেন। বেলা বাড়ার সাথে সাথে সব মাছ মরে ভেসে উঠে। এতে তার কমপক্ষে ১৫ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে তিনি জানান।

ক্ষতিগ্রস্থ মৎস্যচাষী ফিরোজ আহমেদ জানান, মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই লিজ মূল্য বাড়ানো নিয়ে পুুকুর মালিকের সঙ্গে মনোমালিন্য চলছিল। এর জের ধরে তিনি এ কাজ করেছেন বলে আমার ধারণা।

তবে পুকুর মালিক গিয়াসউদ্দিন এই অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, এ ঘটনার সঙ্গে আমার কোন সম্পর্ক নেই।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বড়াইগ্রাম থানার উপ-পরিদর্শক আবুল কালাম আযাদ জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এ ব্যাপারে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।