নিউজ ডেস্ক: ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব বিক্রম দোরাইস্বামীকে ঢাকায় ১৬ তম হাই কমিশনার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নরেন্দ্র মোদী সরকার। রোববার (১২ জুলাই) দেশটির সংবাদ মাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস ও ইউনাইটেড নিউজ অব ইন্ডিয়ার খবরে বিষয়টি জানানো হয়।

হিন্দুস্তান টাইমসের এক খবরে বলা হয়, নয়াদিল্লির ’অন্যতম ঘনিষ্ঠ মিত্র’ ঢাকায় পাঠানো হচ্ছে বিক্রম দোরাইস্বামীকে। এর আগে রীভা গাঙ্গুলী দাস ২০১৯ সালের জানুয়ারিতে ঢাকায় ভারতের ১৫তম হাইকমিশনার হিসেবে যোগ দেন।

বিক্রম দোরাইস্বামী ভারতীয় পররাষ্ট্র ক্যাডারের ৯২ ব্যাচের একজন কর্মকর্তা। তিনি অতিরিক্ত সচিব পদে যোগ দেয়ার আগে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বাংলাদেশ-মিয়ানমার (বিএম) বিভাগের যুগ্ম সচিব হিসেবে কাজ করেছেন। বিক্রম দোরাইস্বামী এর আগে দক্ষিণ কোরিয়া ও উজবেকিস্তানে ভারতের রাষ্ট্রদূতের দায়িত্ব পালন করেন।

এছাড়া ইউনাইটেড নিউজ অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে যোগ দেওয়ার আগে বিক্রম দোরাইস্বামী কিছু সময় সাংবাদিকতাও করেছেন। দিল্লী বিশ্ববিদ্যালয়ে ইতিহাসে পড়েছেন তিনি।

১৯৯২ ব্যাচের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা বিক্রম দোরাইস্বামী অতিরিক্ত সচিব হিসেবে আন্তর্জাতিক সংগঠন ও সম্মেলন বিভাগের ইনচার্জ। এর আগে দক্ষিণ কোরিয়া ও উজবেকিস্তানে ভারতের রাষ্ট্রদূতের দায়িত্বও সামলেছেন এই পেশাদার কূটনীতিক।

এছাড়া পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব থাকার সময়ে বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা ও মিয়ানমার বিভাগে নানা দায়িত্ব পালন করেছেন। মন্ত্রণালয়ের সার্ক বিভাগের প্রধানের দায়িত্বও একসময় তার কাঁধে ছিল।

জানা গেছে, ২০১৯ সালের মার্চ থেকে ঢাকায় হাই কমিশনারের দায়িত্ব পালন করে আসা রীভা গাঙ্গুলী দাশের স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন বিক্রম দোরাইস্বামী। রীভা গাঙ্গুলী ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব (পূর্ব) হিসেবে দায়িত্ব নিতে যাচ্ছন বলেও আভাস দিয়েছে হিন্দুস্তান টাইমস।

১৯৮৬ ব্যাচের আইএফএস অফিসার রীভা গাঙ্গুলি দাশকে পদোন্নতি দিয়ে দিল্লিতে ফিরিয়ে নিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব (পূর্ব) পদে বিজয় ঠাকুর সিংয়ের স্থলাভিষিক্ত করা হবে। আগামী সেপ্টেম্বরে বিজয় ঠাকুরের অবসরে যাওয়ার কথা রয়েছে। সবকিছু ঠিক থাকলে ওই সেপ্টেম্বরেই রীভা দিল্লিতে ফিরলে ঢাকা আসবেন দোরাইস্বামী।

রীভা গাঙ্গুলি দাশের আগে ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশনার হিসেবে নিযুক্ত ছিলেন হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা। বাংলাদেশে দায়িত্ব পালন শেষে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে ভারতীয় রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিযুক্ত হন। গত জানুয়ারি থেকে তিনি ভারতের ৩৩তম পররাষ্ট্র সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

এদিকে, বিক্রম দোরাইস্বামী ঢাকায় এলে কাবুলে তার জায়গা নেবেন রুদ্রেন্দ্র ট্যানডন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পাকিস্তান-আফগানিস্তান-ইরান ডেস্কের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। ‘আফগানিস্তান বিশেষজ্ঞ’ হিসেবে পরিচিত ট্যানডন বর্তমানে আসিয়ানে ভারতীয় দূত হিসেবে জাকার্তায় কর্মরত রয়েছেন বলে জানা গেছে।