নিজস্ব প্রতিবেদক: লালপুরে ৩ শিক্ষককে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এমনকি এমপিওভুক্তও হয়েছেন তারা। এ প্রেক্ষিতে ওই তিন শিক্ষকের নিয়োগে সরকারি প্রতিনিধি ও এমপিওভুক্তিতে জড়িত কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে তদন্ত শুরু করেছে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর।

কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করে জানিয়েছে, লালপুর উপজেলার বরমহাটি সমবায় উচ্চ বিদ্যালয়ে ৩ শিক্ষককে নিয়োগ ও এমপিওভুক্তিতে জালিয়াতি করেছে একটি চক্র। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের ভোকেশনাল শাখার পরিচালক মো. অহিদুল ইসলামকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। আগামী ৭ কর্ম দিবসের মধ্যে অভিযোগটি তদন্ত করে প্রতিবেদন পাঠাতে এ কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর।

জানা গেছে, যোগ্যতা ও নিবন্ধন সনদ না থাকার পরেও এমপিওভুক্ত হয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির ভোকেশনাল শাখার শিক্ষক মো. মিজানুর রহমান, রোকেয়া বেগম ও ফিরোজা খাতুন। এদের মধ্যে মো. মিজানুর রহমান ও রোকেয়া বেগমের শিক্ষক নিবন্ধন নেই। ফিরোজা খাতুন যোগ্যতা ও প্রশিক্ষণ সনদ ছাড়াই যোগদান করেছেন। ইতোমধ্যে ৩ শিক্ষকের এমপিও বাতিল করা হয়েছে।

এদিকে ৩ শিক্ষকের নিয়োগ কমিটিতে থাকা সরকারি প্রতিনিধিরা দায়িত্ব পালনে অবহেলা করায় নিয়োগ ও এমপিওভুক্তিতে জড়িত কর্মকর্তাদের অবহেলায় তারা এমপিওভু্ক্ত হয়েছেন বলে জানিয়েছে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর। এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র নিশ্চিত করেছে।