নিজস্ব প্রতিবেদক:লালপুরে উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহারুল ইসলামকে কুপিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। নিহত জাহারুল ইসলাম লালপুর উপজেলার চংধুপইল ইউনিয়নের সিরাজী নিশিপাড়া গ্রামের মৃত লুৎফর রহমানের ছেলে।

বুধবার (২৮ নভেম্বর) বেলা ১১টার দিকে নর্থবেঙ্গল সুগার মিল গেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।আহত অপর দুই যুবলীগ কর্মী তুহিন এবং পান্থকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী জানায়, নাটোর-১ নির্বাচনী আসনের মনোনয়নবঞ্চিত বর্তমান এমপি অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ সমর্থক নর্থবেঙ্গল সুগার মিলের কর্মচারী মঞ্জুর রহমান মঞ্জু ও অপর মনোনয়ন প্রত্যাশী এমপির নিজের ভাতিজা সাগর আহমেদের অনুসারী লালপুর উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহারুল ইসলাম গ্রুপের মধ্যে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। মনোনয়ন জমার শেষ দিন বুধবার সকালে হঠাৎ দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। এ সময় এমপি সমর্থক মঞ্জু ও স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিল মাসুদ রানাসহ তাদের সহযোগীরা জাহারুল ইসলামকে ধাওয়া করে নর্থবেঙ্গল সুগার মিলের গেটের সামনে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে তার মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আহত করা হয়। বাধা দিতে গিয়ে হামলায় আহত হন আরো কয়েকজন। স্থানীয় লোকজন আশঙ্কাজনক অবস্থায় জাহারুলকে উদ্ধার করে প্রথমে লালপুর ও পরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুর ২টার দিকে জাহারুলের মৃত্যু হয়।

লালপুর থানার ওসি নজরুল ইসলাম জুয়েল দুপুর দুইটার দিকে মারা যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, হত্যাকারীদের ধরতে সহকারী পুলিশ সুপারের (বড়াইগ্রাম সার্কেল) সাথে অভিযান শুরু হয়েছে।বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।