শুক্রবার (২১ আগস্ট) বিকেল ৫ টায় সিংড়া উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগের যৌথ আয়োজনে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার প্রতিবাদ, ঘাতকদের বিচারের দাবিতে এবং নিহতের আত্নার মাগফেরাত কামনায় দোয়া ও আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নাটোর-৩ (সিংড়া) আসনের সংসদ সদস্য ও তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। ছবি: রাজু আহমেদ

বিশেষ প্রতিবেদক: তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি বলেছেন, ৭৫ এর ১৫ আগস্ট থেকে থেকে ২০০৪ এর ২১ আগস্ট একই সূত্রে গাঁথা।বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন চুরমার করতে ওই পরিবারকে নির্মূল করতে চেয়েছিল তারা।কিন্তু পারেনি।সেই ধারাবাহিকতায় শেখ হাসিানাকে তারা হত্যার করতে চেয়েছিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র থেমে নেই। দেশের মানুষের দোয়া ও আল্লাহর রহমত বারবার শেখ হাসিনাকে রক্ষা করে। দেশের মানুষের সেবার জন্যই বেঁচে আছেন শেখ হাসিনা।

শুক্রবার (২১শে আগস্ট) সন্ধ্যায় নাটোরের সিংড়া পৌরসভা চত্বরে একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহত আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের স্মরণে আয়োজিত শোকসভা ও দোয়া মাহফিলে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

সিংড়া পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মেয়র জান্নাতুল ফেরদৌসের সভাপতিত্বে শোকসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে নাটোর-৪ (গুরুদাসপুর-বড়াইগ্রাম) আসনের সংসদ সদস্য ও নাটোর জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস ও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত বক্তব্য রাখেন নাটোর-১ (লালপুর-বাগাতিপাড়া) আসনের সংসদ সদস্য শহিদুল ইসলাম বকুল।

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, পঁচাত্তরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হত্যাকান্ডের কুশীলবদের পুরষ্কৃত করে বিএনপি-জামায়াত প্রমাণ করেছে এদেশে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও আওয়ামী লীগের রাজনীতি যেন না থাকে। তাদের প্রত্যক্ষ মদদ ও রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় একুশে আগস্ট বর্বরোচিত হামলার মাধ্যমে আজকের প্রধানমন্ত্রী ও তৎকালীন বিরোধীদল নেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যাচেষ্টা করা হয়।

জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, দেশের উন্নতি ও সমৃদ্ধির যে ভিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গড়ে দিয়েছেন, তাতে বিশ্বদরবারে বাংলাদেশ প্রশংসিত। শেখ হাসিনার সরকারের সাফল্যে ঈর্ষান্বিত বিএনপি-জামায়াত স্বাধীনতাবিরোধী চক্র এখনো তৎপরতা চালাচ্ছে। দেশের ভেতরে ও বাইরে আওয়ামী লীগ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে ষড়যন্ত্র অব্যাহত রয়েছে। এই ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করতে হলে আওয়ামী লীগকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। বিভেদ ভুলে দলে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

শুক্রবার (২১ আগস্ট) বিকেল ৫ টায় সিংড়া উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগের যৌথ আয়োজনে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার প্রতিবাদ, ঘাতকদের বিচারের দাবিতে এবং নিহতের আত্নার মাগফেরাত কামনায় দোয়া ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নাটোর-৪ (গুরুদাসপুর-বড়াইগ্রাম) আসনের সংসদ সদস্য ও নাটোর জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস। ছবি: রাজু আহমেদ

২০০৪ সালের একুশে আগস্ট শেখ হাসিনার ও তার সমাবেশে গ্রেনেড হামলার পর সিংড়াতে প্রথম প্রতিবাদ হয়েছিল দাবি করে আব্দুল কুদ্দুস এমপি বলেন, বিএনপি-জামাত জোট সরকারের আমলে রাজপথের সেই কঠিন দিনগুলিতে দলেন অগণিত নেতাকর্মী হামলা-মামলা-নির্যাতন সয়ে আজকের আওয়ামী লীগকে প্রতিষ্ঠা করেছে। সেই আওয়ামী লীগ আজ রাষ্ট্রক্ষমতায়। ত্যাগী ও নিবেদিতপ্রাণ সেই নেতাকর্মীদের সম্মান জানাতে হবে। আমাদের বিরুদ্ধে দলের ভেতর ও বাহিরে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। সেসব ষড়যন্ত্রকারীদের মোকাবিলা করতে হবে রাজনীতি দিয়ে। এই মুহুর্তে দল ও দেশের স্বার্থে ঐক্যের বিকল্প নাই।

শহিদুল ইসলাম বকুল এমপি বলেন, দলের জন্য জীবন দেয়া নেতাকর্মীদের রক্তের ঋণ শোধ করার জন্য আওয়ামী লীগকে আরো শক্তিশালী করতে হবে। আওয়ামী লীগ সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী হওয়া মানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শক্তিশালী হওয়া। তিনি কঠিন শোক সংবরণ করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। তার এই ত্যাগের প্রতি সম্মান জানিয়ে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

শুক্রবার (২১ আগস্ট) বিকেল ৫ টায় সিংড়া উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগের যৌথ আয়োজনে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার প্রতিবাদ, ঘাতকদের বিচারের দাবিতে এবং নিহতের আত্নার মাগফেরাত কামনায় দোয়া ও আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নাটোর-১ (লালপুর-বাগাতিপাড়া) আসনের সংসদ সদস্য শহিদুল ইসলাম বকুল। ছবি: রাজু আহমেদ

ষড়যন্ত্র থেমে নেই উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, ৭৫ থেকে ২০০৪ আগস্ট হত্যা ও ষড়যন্ত্রকারী একই। রুপ পরিবর্তন করে তারা বার বার হানা দিয়েছে বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্থপতির পরিবার, দল ও চেতনার ওপর। তাদের গোপন এসব শত্রুর বিরুদ্ধে সজাগ থাকার আহবান জানান তিনি।

কৃতজ্ঞতা: রাজু আহমেদ