বিশেষ প্রতিবেদক: নাটোরের সিংড়া উপজেলার চৌগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ও উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক জাহেদুল ইসলাম ভোলাকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রাণালয়।

মঙ্গলবার (২৮ অক্টোবর) মোহাম্মদ ইফতেখার আহমেদ চৌধুরী স্বাক্ষরিত চিঠির মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। একই সাথে তাঁকে চেয়ারম্যান পদ হতে চূড়ান্তভাবে কেন অপসারণ করা হবেনা মর্মে ১০ দিনের মধ্যে কারণ জানতে চাওয়া হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ২০২০ সালের ১লা জানুয়ারি ছাতারদিঘীতে যাবার পথে শিক্ষক মতিয়ার রহমান মিলনের উপর হামলা হয়। হামলার হুকুমদাতা হিসেবে চৌগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহেদুল ইসলাম ভোলার বিরুদ্ধে সিংড়া থানায় মামলা হয় (মামলা নং ০২/২০)। মামলার বেশ কয়েকজনকে আসামি করা হয়।

প্রজ্ঞাপনে আরও বলা হয়েছে, সিংড়া থানায় দায়েরকৃত মামলা নং ০২, তারিখ ০১.০১.২০২০ বিজ্ঞ আদালতে গৃহীত হওয়ায় স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন, ২০০৯ এর ধারা ৩৪ (১) অনুযায়ী উল্লিখিত ইউপি চেয়ারম্যানকে তাঁর স্বীয় পদ হতে সাময়িক বরখাস্ত করা হলো।

চৌগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহেদুল ইসলাম ভোলা জানান, এ বিষয়ে আমি জড়িত নই। আমার উপস্থিতিতে এমন ঘটনা ঘটেছিল মাত্র।

এ বিষয়ে মামলার বাদী মতিয়ার মিলনের মোবাইল বন্ধ পাওয়ায় তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাসরিন বানু জানান, বিষয়টি শুনছি। এ বিষয়ে আমি এখনো কোনো চিঠি পাইনি। তবে চিঠি ইস্যু হয়েছে। নাটোর জেলা ডিডিএলজি দপ্তরে চিঠি রয়েছে বলে জানতে পেরেছি বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

চৌগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহেদুল ইসলাম ভোলাকে সাময়িক বহিষ্কারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নাটোরের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক গোলাম রাব্বী। তিনি জানান, মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপন কপি ইউএনও বরাবার পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

কৃতজ্ঞতা: মো. আবু জাফর সিদ্দিকী