বিশেষ প্রতিবেদক: আসন্ন নাটোরের সিংড়া পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও সিংড়া টেকনিক্যাল এন্ড বিজনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ মোঃ আবু বকর সিদ্দিক রকি বলেছেন দলীয় মনোনয়ন পেয়ে মেয়র পদে র্নিবাচিত হলে শিক্ষানগরী নামে পরিচিত প্রথম শ্রেণির এই পৌরসভাকে একটি স্বপ্নের শহর হিসেবে গড়ে তুলতে চাই।

সিংড়া গুড়নদীর ভাঙ্গন জলাবদ্ধতা দূরিকরণ সহ পানি নিষ্কাশনের আধুনিক ড্রেনেজ ব্যবস্থা, রাস্তার উন্নয়ন ও পরিকল্পিত অবকাঠামো নির্মাণ করে একটি মডেল পৌরসভা হিসেবে নতুন করে সিংড়া শহরকে সাজানোই হবে আমার মূল লক্ষ্য।

বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) বেলা ১১টায় সিংড়া টেকনিক্যাল এন্ড বিজনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজের নিজ অফিসে অনুষ্ঠিত সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সময় তিনি এসব বলেন।

তিনি আরো বলেন, আমি বঙ্গবন্ধুর আর্দশ নিয়ে সেই ছাত্র জীবনেই রাজনীতির সাথে জড়িয়ে পড়ি। ১৯৯৩ সালে বগুড়া আজিজুল হক কলেজ শাখার ছাত্রলীগের সভাপতি নির্বাচিত হই। ১৯৯৪ সালে বগুড়া জেলা শাখার ছাত্রলীগের ক্রীড়া সম্পাদক এবং ১৯৯৬ সালে বগুড়া আজিজুল হক কলেজ ছাত্র সংসদ র্নিবাচনে রকি-রাজ্জাক-ডাবলু পরিষদে ভিপি পদে প্রতিদ্বন্দিতা করি।

১৯৯৯ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সিংড়া উপজেলা শাখা প্রতিষ্ঠা করি এবং সেখানে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হই। ২০০১ সাল থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত সিংড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করেছি এবং বর্তমান উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হিসেবে নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করছি।

এছাড়া ২০০৮ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় মনোনীত প্রার্থী এড. জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি মহোদয়ের প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালনসহ স্থানীয় জাতীয় সব নির্বাচনে দলীয় নির্দেশনা মোতাবেক নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছি।

অধ্যক্ষ রকি আরো বলেন, দীর্ঘ ২৮ বছর ধরে দলের সাথে আছি আগামীতেও থাকবো। বর্তমান সিংড়া পৌরসভায় একজন যোগ্য মেয়র প্রয়োজন। সেক্ষেত্রে দল আমার র্দীঘ দিনের রাজনীতির অবস্থানে আমাকে যোগ্য মনে করে মনোনয়ন দিলে আর আমি জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হলে সিংড়াকে নতুন স্বপ্নের শহর হিসেবে গড়ে তুলবো।

বক্তব্য শেষে তিনি সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন। দলীয় মনেনয়ন না পেলে কি করবেন এক সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মনোনয়ন না পেলে আমি দলের মনোনীত প্রার্থীকে সর্মথন দিয়ে মাঠে নেমে কাজ করবো।

কৃতজ্ঞতা: মো. আবু জাফর সিদ্দিকী