নিউজ ডেস্ক: নাটোরের সিংড়ায় আত্রাই নদীর পানির চাপে শেরকোল ও তাজপুর ইউনিয়নের সংযোগ সড়কের তেমুখ নওগাঁ ও রিফুজিপাড়া এলাকায় বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ভেঙ্গে লোকালয় প্লাবিত হয়েছে।

বুধবার (১৫ জুলাই) আত্রাই নদীর পানি বিপদ সীমার ৪০ সেন্টি মিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের দায়িত্বরত কর্মকর্তা শমিম আল মামুন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মাত্র দুই মাস আগে নির্মাণ করা হয় সিংড়া-তেমুখ নওগাঁ সড়ক। কিন্তু গত রাত তিনটার দিকে বন্যার পানির চাপে সড়কটির ভাগনাগরকান্দি এলাকার দুটি স্থানে ভেঙে যায়। এর ফলে বাড়ি ঘর ও ফসলী জমিতে তীব্র বেগে পানি ঢুকে পড়েছে। বাঁধ-কাম সড়কটি ভেঙ্গে যাওয়ায় বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে দু’ইউনিয়নের মধ্যে আন্তঃ যোগাযোগ। হুমকির মুখে রয়েছে বাঁধ সংলগ্ন বাড়ি-ঘর গুলো। নিম্নাঞ্চলের জনগণের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

স্থানীয়দের অভিযোগ বন্যার পানি কম থাকার সময় বারবার বলার পরেও কেউ কর্ণপাত করেননি। তাছাড়া রাস্তা নিচু হওয়ার কারণে অতি সহজেই বিভিন্ন অংশ ভেঙে গেছে। তবে এলজিইডি কর্মিরা বালির বস্তা দিয়ে বাঁধ রক্ষার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে জানান এলজিইডি সিংড়ার সহকারী প্রকৌশলী হাসান আলী।

এ ব্যাপারে এলজিইডির উপজেলা প্রকৌশলী হাসান আলী জানান, গত দুই মাস আগে প্রায় তিন কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয় এই সড়কটি। কিন্তু আত্রাই নদীর পানির চাপে সড়কটির দুটি স্থানে ভেঙে গেছে এবং রাস্তার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। আমরা বালির বস্তা দিয়ে ভাঙ্গন রোধ করার চেষ্টা করছি।

বন্যা নিয়ন্ত্রণ ভাঙনের বিষয়টি নিশ্চিত করে সিংড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাসরিন আক্তার বানু জানান, সংশ্লিষ্টদের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এদিকে জেলা প্রশাসক মোঃ শাহরিয়জ জানান, বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পরেই সিংড়া উপজেলা নির্বাহি অফিসারসহ সংশ্লিষ্টদের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।